মেইন ম্যেনু

ভেতরে ৪০০, ছাদে ৩০০

ঈদুল আজহার আর মাত্র একদিন বাকি। রাজধানীর গাবতলী বাস টার্মিনালে যাত্রীদের ভিড় প্রচণ্ড।

লোকাল বাসগুলো যাচ্ছে পাটুরিয়া ঘাট পর্যন্ত। বাসের ভেতরে বা ছাদে কোথাও পা ফেলার মতো জায়গা নেই। বাস আসামাত্র যাত্রীরা ঠেলাঠেলি করে বাসে উঠছে। সাধারণত এসব বাসের ভাড়া ৮০ কিংবা ১০০ টাকা। কিন্তু ঈদুল আজহা উপলক্ষে এই ভাড়া বেড়েছে তিন-চার গুন।বাসের ছাদে বা ভেতরে দাঁড়িয়ে গেলে ৩০০ টাকা আর সিটে বসলে ৪০০ টাকা।

যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঈদ উপলক্ষে এসব বাস গলাকাটা ভাড়া আদায় করে থাকে।বৃষ্টির কারণে ভাড়া বাড়ানো হয়েছে আরো বেশি।

যাত্রী রোকেয়া বেগম(৬০) বলেন,‘অনেক কষ্ট করে বাসে উঠে বসলাম। এখন রাস্তায় যদি কোনো সমস্যা না হয় তাহলে দ্রুত চলে যেতে পারব।’ ভাড়া বেশি নিলেও সময়মতো যেতে পারলেই খুশি রোকেয়া বেগম।তার সঙ্গে রয়েছে তার ১২-১৩ বছর বয়সি দুই নাতি।

বাসচালক বশির মিয়া(৩৫) বলেন, ‘ঈদ উপলক্ষে প্রচুর যাত্রী সমাগম হয়। এ সময় একটু বেশি রোজগার করার চেষ্টা করি। সবকিছুর তো দাম বেশি। কী করব, বলেন। আমরাও তো ব্যক্তিগত কাজ ফেলে যাত্রীদের সেবা করছি।’

সগির মিয়া(৭০) সকাল থেকে টার্মিলালে দাঁড়িয়ে কোনোভাবে বাসে উঠতে পারছিলেন না। তিনি বলেন, ‘গায়ে শক্তি নাই রে বাবা। এ কারণে ঠেলাঠেলি করে বাসে উঠতে পারি না। তাই দাঁড়িয়ে আছি। দেখি পরের বাসে উঠতে পারি কি না।’

সময়মতো বাড়ি গিয়ে ঈদ উদযাপন করবেন এমনই সবার ইচ্ছা। তাই যত কষ্টই হোক, সময়মতো বাড়িতে যেতে হবে। আপন মানুষদের সঙ্গে মিলেমিশে ঈদ পালন করবে এমনটিই সবাই চায়।