মেইন ম্যেনু

ভোট না দেওয়ায় রাস্তা বন্ধ করে দিলেন আ.লীগের পরাজিত প্রার্থী

ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ভোট না পেয়ে ৬টি পরিবারের চলাচলের জন্য ব্যবহৃত একমাত্র রাস্তায় বেড়া দিয়ে আটকে দিলেন আওয়ামী লীগের পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী। এতে ব্যাপক ভোগান্তি পোহাচ্ছেন ওই পরিবারগুলোর সদস্যরা। আলোচিত এ ঘটনাটি ঘটেছে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার সানিয়াজান ইউনিয়নের আরাজি শেখ সুন্দর গ্রামে। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় চলছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সানিয়াজান ইউপির আরাজি শেখ সুন্দর গ্রামের স্কুল শিক্ষক সাখাওয়াত হোসেনকে নৌকার পক্ষে কাজ করতে চাপ সৃষ্টি করেন আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী হাশেম তালুকদার।

তারা পরস্পর আত্মীয় হলেও সরকারি স্কুলের শিক্ষক হওয়ায় প্রচারণায় অংশ নিতে অপারগতা জানান সাখাওয়াত হোসেন। গত ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় দফার ওই নির্বাচনে হাশেম তালুকদার হেরে গেলে ওই শিক্ষকসহ তার প্রতিবেশীদের ওপর ক্ষুব্ধ হন।

ওই ঘটনার জের ধরে হাশেম তালুকদারের নির্দেশে গত মঙ্গলবার সাখাওয়াত হোসেনসহ তার ৬ প্রতিবেশীর চলাচলের জন্য ব্যবহৃত রাস্তাটি দুই পাশ থেকেই বাঁশের বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়।

রাস্তার জমির মালিক শাহ জামালকে রাস্তাটি বন্ধ করতে বাধ্য করেছেন ওই আওয়ামী লীগ নেতা। বিকল্প কোনো রাস্তা না থাকায় বাড়ি থেকে বের হওয়াসহ চলাচল নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন ওই ৬ পরিবারের লোকজন।

সানিয়াজান ইউনিয়ন বিজয়ী চেয়ারম্যান আব্দুল গফুর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ওই জমির মালিক শাহ জামালের সঙ্গে কথা বলেছি। কিন্তু তিনি হাশেম তালুকদারকে ভয় পায় বলে বাঁশের বেড়া খুলতে পারছেন না। বিষয়টি সমাধানে জোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

জমির মালিক শাহ জামাল বলেন, রাস্তাটি আমার জমির ওপর হলেও আমি তা বন্ধ করতে চাইনি। বিষয়টি নিয়ে হাশেম তালুকদারের সঙ্গে বসে সমাধান করা হবে। এ বিষয়ে পরাজিত প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা হাশেম তালুকদারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি মোবাইল ফোন রিসিভ করেননি।