মেইন ম্যেনু

তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল

ভোলার মনপুরায় ট্রলার ডুবি কাগজে কলমে অভিযান

ভোলার মনপুরায় ট্রলার দুর্ঘটনায় সরকারী হিসাবে নিহত হয় ৮ জন। আর বেসরকারী হিসাবে ১২ জন। সরকারী হিসাবে নিখোঁজ রয়েছে ৬ জন। বেসরকারী হিসাবে ১৪ জন। গত ৬ দিনও অভিযানে নিখোঁদের সন্ধান না পাওয়ায় স্বজনদের মধ্যে বইছে ক্ষোভ।

এদিকে মেঘনায় অভিযান পরিচালনা না করে কাগজে কলমে অভিযান পরিচালিত হয়েছে বলে অভিযোগ করছে নিখোঁজ ও নিহতের লোকজন । তারা নিজ উদ্যোগে মেঘনায় আপনজনদের খুঁজছে।

এদিকে অভিযানের ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এরশাদ হোসেন খান ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের ভিন্ন ধরনের বক্তব্য পাওয়া গেছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এরশাদ হোসেন খান বলছেন, ( সোমবার) বিকেল থেকে অভিযানের সমাপ্তি। অন্যদিকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মনোয়ার হোসেন জানান, অভিযান শেষ হয়নি, কোস্টগার্ড ও পুলিশের একটি টিম সবসময় প্রস্তুত রাখা হয়েছে। লাশের খোঁজ পাওয়া গেলে দ্রুত তা উদ্ধার করা হবে এবং সরকারী তরফ থেকে ঘোষনাকৃত সহযোগীতা দেওয়া হবে।

মনপুরায় ট্রলার ডুবি কি কারনে ঘটছে তার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মনোয়ার হোসেন। তদন্তে ট্রলার চালকের অদক্ষতা, ফিটনেসবিহীন যান, অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই ও ট্রলারের তলা ছিদ্রকে দোষারোপ করা হয়।