মেইন ম্যেনু

ভোলার মনপুরায় নৌরুটে সী-ট্রাক বন্ধ দুর্ভোগে যাত্রীরা

ভোলার মনপুরা-তজুমুদ্দিন নৌরুটে গত ৭ দিন ধরে যাত্রীবাহি সী-ট্রাক এস.টি শহীদ শেখ কামাল বন্ধ রয়েছে । এতে দুর্ভোগে পড়েছে শত শত যাত্রীরা। ভোলা জেলার সাথে নৌপথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম সী-ট্রাকটি বন্ধ থাকায় বাধ্য হয়ে যাত্রীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছোট ছোট ট্রলারে যাতায়াত করছে। যে কোন সময় বড়ধরনের দুর্ঘটনার আশংকা করছেন স্থানীয়রা।

সূত্রে জানা যায়, এস.টি শহীদ শেখ কামাল সী-ট্রাকটি গত ৩০ আগস্ট ভোলার মনপুরা থেকে যাত্রী নিয়ে তজুমদ্দিনের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হলে পথিমধ্যে যান্ত্রীক ত্রুটি দেখা দেয়। এরপর ৩১ আগস্ট ওথকে আজ পর্যন্ত বন্ধ রয়েছে যাত্রীবাহি সী-ট্রাকটি ।

এদিকে বিআইডব্লিউটিসি সূত্রে জানা যায়, টেন্ডারের মাধ্যমে এই নৌরুটে এস.কে ট্রেডার্সের মাধ্যমে বিআইডব্লিউটিসি সী-ট্রাক পরিচালিত হয়।

স্থানীয় লোক আরিফ এর সাথে আলাপ করে জানা যায়, প্রতি বছর কোন না কোন অজুহাতে বন্ধ থাকে সী-ট্রাকটি। আবার কিছুদিন পরে পুরাতন সী-ট্রাকটি মেরামত করে ফের চালু হয়। আবার বন্ধ হয়ে যায় । যাত্রীরা বাধ্য হয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছোট ছোট ট্রলারে যাতায়াত করতে হচ্ছে।

অপরদিকে সী-ট্রাকটি টেন্ডারে পাওয়া এস. কে ট্রের্ডাসের ম্যানেজার ভুট্টো মুঠোফোনে জানান, পুরোপুরো মেরামত শেষ না করে এই রুটে তড়িঘড়ি করে পাঠানো হয় পুরাতন সী-ট্রাকটি। তজুমদ্দিন ঘাটে সি-ট্রাকটি রেখে যান্ত্রিক ত্রুটির মেরামতের কাজ চলছে। এই রুটে নতুন সী-ট্রাক না দেওয়া পর্যন্ত এই ধরনের সমস্যা হবে বলে তিনি জানান।

বিআইডব্লিউটিসি এর বরিশাল অঞ্চলের সহকারি মহাব্যবস্থাপক আবুল কালাম আজাদ মুঠোফোনে জানান, যান্ত্রীক সমস্যার কাজ চলছে। আশাকরি শীঘ্রই সী-ট্রাকটি চালু করা হবে। তবে নতুন সী-ট্রাক দেওয়ার জন্য উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ করা হচ্ছে।