মেইন ম্যেনু

ভোলার মেঘনায় ট্রলার ডুবির ঘটনায় পুলিশের মামলা দায়ের

ভোলার মনপুরার মেঘনায় ট্রলারডুবির ঘটনায় ট্রলারের মাঝি, মিস্ত্রি ও ঘাটের ইজারাদারদের আসামি করে মামলা দায়ের করেছে মনপুরা থানা পুলিশ। শুক্রবার মনপুরা থানার এস আই ফিরোজ আলম বাদী হয়ে এ মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় আসামিরা হলেন, ট্রলার মালিক মালিক নাইম মাঝী(৩০), মাঝি সোহাগ (২৫), মিস্ত্রি জাকির (২০) ও সুমন (২৫)। এদের বাড়ি মনপুরা উপজেলার কলাতলীর চরে। মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, দুর্ঘটনার তিন/চারদিন আগে ট্রলারটির নিচের অংশে ছিদ্র দেখা যায়। কিন্তু তা মেরামত না করে চরম গাফিলতি ও ধারণক্ষমতার অনেক বেশি যাত্রী (১০০-১৫০ জন) নিয়ে ট্রলারটি চলাচল করে আসছিলো।

একই সমস্যা নিয়ে বৃহস্পতিবার ট্রলার মালিক ও ঘাট ইজাদাররা ওই ট্রলারটিকে চলাচল করতে দেওয়া হয়। ফলে ওই দিন সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ট্রলারটি মেঘনায় ডুবে যায়। এ ঘটনায় ১০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এদের মধ্যে ছয়টি শিশু ও চার নারী রয়েছেন।

নিখোঁজ রয়েছেন নারী ও শিশুসহ অন্তত ১০ জন।মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও মনপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হানিফ সিকদার জানান, দুর্ঘটনার দিন আটক সুমনকে এ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। বাকি আসামিরা পলাতক। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।