মেইন ম্যেনু

ভোলার লালমোহনে দুই হরিণ উদ্ধার

ভোলার লালমোহন উপজেলার লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউনিয়নের চাদমিয়ারহাট এলাকায় বুধবার সকালে দু’টি হরিণ রেখে পালিয়ে গেছে ইটভাটা কেন্দ্রীক গড়ে ওঠা কাঠ চোর চক্রের সদস্যরা। পরে সেগুলো উপজেলা বন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বনে অবমুক্ত করা হয়।

বন বিভাগ লালমোহন রেঞ্জ অফিসের আব্দুল হাই বলেন, আমরা স্থানীয় চেয়ারম্যানের মাধ্যমে খবর পেয়ে হরিণ দু’টি উদ্ধার করে ট্রলারে ওঠিয়ে মেঘনা নদীর চরে বন বিভাগের বাগানে অবমুক্ত করি। লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম মিয়া বলেন- সকালে আমি জনগনের মাধ্যমে খবর পেয়ে হরিণ দু’টি আটক করে বন বিভাগে খবর দেই। পরে তারা হরিণ দু’টিকে নিয়ে যায়।

এ হরিণ কোথা থেকে এলো সে বিষয়ে কিছুই বলতে পারেনি চেয়ারম্যান। তবে পরিচয় গোপন রেখে অনেকে জানান- মেঘনা নদীর মাঝ খানে বন বিভাগের বিশাল ম্যানগ্রোভ বাগান রয়েছে। বাগানে আছে বিভিন্ন ধরনের হরিণ ও বণ্যপ্রাণী। ইটভাটা কেন্দ্রীক গড়ে ওঠা কাঠ চোর চক্রের সদস্যরা এই হরিণ ফাঁদ পেতে ধরে জবাই করে হরিণের মাংস নিজেরা ভক্ষণ করার পাশাপাশি সৌখিন বুর্জয়াদের বাড়িতেও পৌঁছে দেয়। হয়তো এই চক্রের সদস্যরাই হরিণ দু’টিকে নিয়ে আসে। ভোর হয়ে যাওয়ায় তারা হরিণ দু’টিকে আত্মসাৎ করার সুযোগ না পেয়ে নদীর কিনারায় ফেলে যায়। গত বছর ওই স্থান হতে আরেকটি হরিণ উদ্ধার করেছিল বন বিভাগ।