মেইন ম্যেনু

অর্ধ লক্ষ টাকা ছিনতাই

ভোলার শিবপুরে পূর্ব শুত্রুতার জেরধরে ব্যবসায়ীকে মারধর

ভোলার শিবপুরে পূর্ব শুত্রুতার জেরধরে জিলন (৩৫) নামের এক ব্যবসায়ীকে মারধর করেছে সন্ত্রাসীরা। এসময় তার কাছে থাকা অর্ধলক্ষ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এতে আহত ব্যবসায়ীকে গুরত্বর অবস্থায় ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে এলাকাবাসী। এই ঘটনায় রাতে ব্যবসায়ী পরিবারের পক্ষ থেকে ভোলা থানায় একটি ছিনতাই এর মামলার প্রস্তুতি চলছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে শিবপুর ইউনিয়নের রতনপুর বাজার সংলগ্ন এই ঘটনা ঘটে।

জানা যায় যে, শিবপুরে ২নং ওয়ার্ডের আলীরাজ সাহেবের বাড়ীতে দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে ওরজ শরীফ হয়ে আসছিল। কিন্তু তাদের এই ওরজ শরীফ করার জন্য জিলনদের পরিবারের কাছে স্থানীয় চাদাঁবাজ কবীর, ইয়াছিন, কালাম দুলালসহ আরো অনেকে মিলে ১লক্ষ টাকা চাদাঁ দাবি করে আসছিল। কিন্তু তারা চাদাঁর টাকা না দিয়ে আইনশৃঙ্গলা বাহিনীর সহযোগীতা নিয়ে ওরজ শরীফ সফল করে। এতে ঐ চক্রটি ক্ষীপ্ত হয়ে পরিকল্পিতভাবে বৃহস্পতিবার সকালে রতনপুর বাজারে আগে থেকে অত পেতে থাকে। এসময় আম ব্যবসায়ী জিলন আমের অর্ধলক্ষ টাকা সঙ্গে নিয়ে বাজারে দিকে আসছিল।

এসময় কবীর, ইয়াছিন, কালাম, দুলাল, শাহীন, শফি, আবু, তাহের মিলে জিলন কে মারধর করে তার ডান পা ভেঙ্গে দেয়। এসময় তার কাছে থাকা আমের ব্যবসার ৫০ হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। এসময় সন্ত্রাসীরা জিলনকে বাচাঁনোর জন্য বাজারের লোক জন এগিয়ে আসলে তাদেরকে মারধর করে। পরে খবর পেয়ে জিলনের স্ত্রী হাসিনা বেগম বাজারের দিকে আসতে চাইলে সন্ত্রাসীরা তার স্ত্রীকে পথি মধ্যে লানিচিত করে। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় গুরত্বর আহত অবস্থায় জিলনকে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এব্যাপারে ভোলা সদর থানায় রাতেই সন্ত্রীদের বিরুদ্ধে একটি ছিনতাই এর মামলার হয় । এব্যাপারে ব্যবসায়ী জিলন জানান, আমার উপর হামলার পিছনে আমি স্থানীয় চেয়ারম্যান সিরাজকে দায়ী করবো। তার নেতৃত্বেই সকালে আমার উপর হামলা করে আমার ৫০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। আর উনি চেয়ারম্যান হিসাবে আমাকে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে বাচাঁনো রেখে উল্টো তাদেরকে আমার উপরে লেলিয়ে দিয়েছে।
এ ব্যাপারে শিবপুরে চেয়ারম্যান সিরাজকে ফোনে করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।