মেইন ম্যেনু

নদীর ভাঙ্গন ও জোয়ার বন্যা থেকে বাঁচতে

ভোলায় তেঁতুলিয়া নদীর তীরে প্রায় ১ কিলোমিটার র্দীঘ মানববন্ধন

রাক্ষুসে মেঘনার ভয়াবহ ভাঙ্গনের সাথে সাথে এবার তেঁতুলিয়া নদীরও ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। তেঁতুিলয়া নদীর ভাঙ্গন ও জোয়ার বন্যা থেকে বাঁচতে ভোলার ভেদুরিয়া ইউনিয়নের মানুষ নদীর তীরে প্রায় ১ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বুধবার সকালে মানববন্ধন ও দোয়া মুনাজাত করা হয়েছে। বৃষ্টি উপেক্ষ করে চর ভেদুরিয়া গ্রামের কয়েকশ নারী পুরুষ শিশু তাদের অস্তিত্ব ভিটা মাটি রক্ষায় বুধার সকালে তেঁতুলিয়া নদীর তীরে ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধনে অংশ নেয়।

স্থানীয় এলাকাবাসী আয়োজিত মানববন্ধন বক্তব্য রাখেন
ভেদুরিয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা ব্যাংকেরহাট সমবায় বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক লোকমান ফরাজি , চর চন্দ্র প্রসাদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাইনুল ইসলাম জুয়েল, সমাজ সেবক লোকমান ফরাজী, শাজাহান হাওলাদার ও মোহাসিন হাওলাদার।

এ সময় বক্তারা বলেন, বলেন, ভেদুরিয়া লঞ্চঘাট থেকে ব্যাংকেরহাট বাজার পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা, বাড়ি-ঘর ও ফসলি জমি ভেঙে গেলেও সরকারের কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে। বন্যা নিয়ন্ত্রণবাঁধ না থাকায় বছরের ছয় মাস ইউনিয়নের প্রায় তিন হাজার পরিবার চার-পাঁচ হাত পানির নিচে জোয়ারবন্যায় ডুবে থাকে। বছরের পর বছর মানুষ এভাবে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে।

অপর দিকে স্থানীয়রা বলেন,ভাঙ্গন অব্যাহত থাকলে অচিরেই ভেদুরিয়া ভোলার বিশ্বরোডটি ভেঙ্গে যাবে। ইতো মধ্যে ওই এলাকার মসজিদ, স্কুল, বিলীন হয়ে গেছে। এখন হুমকির মুখে পড়েছে আরো মসজিদ,মদ্রিসা,শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ শত শত বাড়ি ঘর। তাদের দাবি জরুরি ভিত্তিতে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যেন ভাঙন প্রতিরোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করে।