মেইন ম্যেনু

ভোলায় নকলে সহায়তায় ৮ শিক্ষকসহ বহিষ্কার-১৮

ভোলার দৌলতখানে উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাউবি) পরীক্ষায় নকলের দায়ে ১০ শিক্ষার্থী এবং নকলে সহযোগিতা করায় ৮ শিক্ষককে বহিষ্কার করা হয়েছে। শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) বাউবির এইচএসসি ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা চালাকালে তাদের বহিষ্কার করা হয়।

এছাড়া, দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে পরীক্ষার কেন্দ্র সচিব ও বাউবির সহ পরিচালকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দেওয়া হয়েছে। দৌলতখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুস্তাফিজুর রহমান বহিষ্কারের এসব আদেশ দেন।

সংশ্লিষ্টরা জানায়, সকালে দৌলতখানের বাংলাবাজার এলাকার হালিমা খাতুন মহিলা ডিগ্রি কলেজে ইংরেজি প্রথম পত্র বিষয়ের পরীক্ষা চলছিল। এ সময় দৌলতখানের ইউএনও মুস্তাফিজুর পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়ে নকলের মহোৎসব দেখতে পান।

এতে তাৎক্ষণিক তিনি ছয় শিক্ষক ও ১০ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেন। একই কেন্দ্রে বিকেলে ইংরেজি ২য় পত্র পরীক্ষায় বোর্ডে প্রশ্নের উত্তর লিখে দেওয়ার অভিযোগে দুই শিক্ষককে বহিষ্কার করা হয়।

দৌলতখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, কেন্দ্র সচিব ও প্রধান শিক্ষক নূরে আলম ও বরিশাল অঞ্চলের বাউবির সহকারী পরিচালক ও পরীক্ষা সমন্বয়কারী আবু সাঈদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।