মেইন ম্যেনু

ভোলায় রোয়ানু’র প্রভাবে ৪ উপজেলা প্লাবিত

ঘূর্নিঝড় রোয়ানুর প্রভাবে ভোলার ৪ উপজেলার নদীর আশ-পাশের নিচু এলাকার ৮ টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

চরফ্যাশন উপজেলার কুকরী-মুকরী, মনপুরা উপজেলার হাজীরহাট, ঢালচর, কলাকলীর চর এবং তজুমদ্দিন ও দৌলতখান উপজেলার নদীর র্তীরের নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

অতিজোয়ারের কারনে সেখানকার অধিকাংশ এলাকা ২/৩ ফুট পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছে প্রায় অর্ধলাখ মানুষ।

শুক্রবার রাত থেকে এসব এলাকা পানিতে প্লাবিত হয়েছে।

চর কুকরী-মুকরী ইউপি চেয়ারম্যান মো. হাসেম মহাজন জানান, রোয়ানু’র প্রভাবে অতি জোয়ারের পানিতে কুকরী-মুকরী ইউনিয়নের চর পাতিলার এলাকার প্লাবিত হয়েছে। এছাড়াও অনেকে আতংকিত, সেখানে একটি সাইক্লোন সেল্টার আশ্রয় নিয়েছে।

ঢালচর ইউপি চেয়ারম্যান সালাম হাওলাদার জানান, ঘুর্নিঝড় রোয়ানু’র কারনে পুরো এলাকার মানুষ আতংকিত। জোয়ারে পানিতে ৯টি ওয়ার্ডেও বেশীরভাগ এলাকা তলিয়ে গেছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন হাজারও মানুষ।

মনপুরা উপজেলার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ কলাতলীর চর এলাকার বাসিন্দা মো. ইব্রাহীম ও আলমগীর জানান, কলাতলীর চর জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে, এতে বেশ কয়েকটি ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে।

এদিকে, রোয়ার প্রভাবে জোয়ারের পানি তীব্র স্রোতের কারনে ভোলা সদর উপজেলার ইলিশা ইউনিয়নে মেঘনার ভাঙন বেড়েছে।

ওই এলাকার বাসিন্দা মো. হাফিজ, ছগির ও ছানাউল্লাহ জানান, বিকেল থেকে মেঘনার নদীর স্রোত অনেক বেড়েছে। যার কারনে আগের চেয়ে ভাঙনও অনেক বেড়েছে।