মেইন ম্যেনু

ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটে ঈদের আগেই নতুন ফেরি: নৌমন্ত্রী

ভোলাসহ দেশের দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলে ঈদে বাড়ি ফেরা নিশ্চিত করতে ফেরিঘাট পরিদর্শণকালে নৌ ও পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, লঞ্চ মালিকদের রোটেশন প্রথা বাতিল করতে জনগণকে সোচ্চার হতে হবে। জনগন সচেতন হয়ে দাবি জোরদার করলেই বেসরকারি লঞ্চ মালিকরা এ কাজ আর করতে পারবেন না। তিনি বলেন, ২০ বছরে যে কাজ হয় নি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার নৌ-পথে সেই সফলকা এনেছেন।

তিনি শনিবার দুপরে ভোলা-লক্ষ্মীপুর ফেরি রুটের ইলিশা ঘাটের এক পথ সভা ও সাংবাদিকদের প্রশ্ন উত্তরে জানান, এ রুটে ঈদের আগেই নতুন ফেরি দেয়া হচ্ছে। একই সঙ্গে ট্রার্মিনাল স্থাপন ও ঈদে ভোলা-ঢাকা রুটে স্পেশাল রকেট সার্ভিস দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।এদিকে ওই এলাকায় ফেরি বাস্তবায়ন ও ভোলা স্বার্থ রক্ষা উন্নয়ন কমিটির ব্যানারে সকালে ফেরিঘাট উন্নয়নে ১১ দফা দাবিতে কয়েক হাজার মানুষ মানববন্ধনে অংশ নেন। পরে মন্ত্রীকে স্মারক লিপি দেন।

এ সময় বক্তব্য রাখেন ফেরি বাস্তবায়ন ও ভোলা স্বার্থ রক্ষা উন্নয়ন কমিটির সম্পাদক আরটিভি প্রতিনিধি অমিতাভ অপু, প্রবীন সাংবাদিক আবু তাহের, শাহাদাত হোসেন শাহীন, স্থানীয় আ’লীগ নেতা আব্দুল মন্নান, আমির হোসেন প্রমুখ। এসময় নৌ-মন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোঃ সেলিম রেজা, পুলিশ সুপার মোহাঃ মনিজরুজ্জামান সহ জেলা প্রর্যায়ের কর্মকর্তারা।

এর আগে মন্ত্রী শাজাহান খান বরিশাল হয়ে লাহারহাট, ভেদুরিয়া এক পথসভায় বক্তব্য রাখেন। বক্তব্য শেষে ভেদুরিয়া জামে মসজিদে অনুদান প্রদান করে। পরে মন্ত্রী ভোলার ইলিশা ও লক্ষ্মীপুরের মজুচৌধুরী ঘাট পরির্দশনে আসেন।উল্লেখ ভোলা লক্ষ্মীপুর ফেরি রুটের ইলিশাঘাট কয়েক দিন ধরে জোয়ারের পানিতে তলিয়ে থাকায় ওই এলাকা পরির্দশনকালে দ্রুত ঘাট উন্নয়নের নির্দেশ দেন মন্ত্রী ।