মেইন ম্যেনু

‘ভ্যাট দেব না, গুলি কর’

চলতি সংসদ অধিবেশনেই ভ্যাট প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত চান ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি ও অন্যান্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার ওপর ভ্যাট প্রত্যাহার এবং ইউনিভার্সিটির শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে আন্দোলন করছেন ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা।

এ ছাড়া বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে যেসব পুলিশ সদস্য শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ওপর গুলিবর্ষণ ও লাঠিপেটা করেছে, তাদের চিহ্নিত করে বিচারের মুখোমুখি করা ও আহতদের চিকিৎসার যাবতীয় ব্যয়ভার রাষ্ট্রকে বহন করার দাবি জানানো হয়েছে। এ সময় শিক্ষার্থীরা ‘ভ্যাট দেব না, গুলি কর’, ভ্যাটমুক্ত উচ্চশিক্ষার অধিকার নিশ্চিত করুন’সহ বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন।

ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘নো ভ্যাট অন এডুকেশন’ এর মুখপাত্র ফারুক আহমাদ আরিফ এ বিষয়ে বলেন, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছে আমাদের আহ্বান হচ্ছে, বিক্ষোভ সমাবেশগুলো শান্তিপূর্ণভাবে করা। কোনোভাবেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে যাওয়া যাবে না।

তিনি বলেন, নো ভ্যাট অন এডুকেশন জাতীয় সংসদে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা হওয়ার পর, গত ১৩ জুন ও আনুষ্ঠানিকভাবে ৫ জুলাই থেকে শিক্ষা খাতে ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে শান্তিপূর্ণভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছে।

আরিফ বলেন, শিক্ষার ওপর ৭ দশমিক ৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত ছাত্রসমাজ ঘরে ফিরে যাবে না। গতকাল ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী ও শিক্ষকের ওপর গুলিবর্ষণ ও লাঠিপেটা করা হয়, যা দুঃখজনক। সরকারের কাছে আবারও আহ্বান জানাচ্ছি শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংসকারী ভ্যাট তুলে নিয়ে আমাদের ক্লাস রুমে ফিরে যাওয়ার ব্যবস্থা করুন। অন্যথায় দেশের আপামর জনসাধারণকে সঙ্গে নিয়ে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

এদিকে শিক্ষার ওপর ভ্যাট প্রত্যাহার ও আন্দোলনরত ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি হামলার প্রতিবাদে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন বেসরকারি ইউনিভার্সিটিতে ধাপে ধাপে শিক্ষার্থীরা ‘নো ভ্যাট অন এডুকেশন’ ব্যানারে বিক্ষোভ সমাবেশ করে আসছে।

এর মধ্যে বৃহস্পতিবার রাজধানীর চারটি স্থানে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ সমাবেশ করছেন। সকাল ১০টায় আফতাবনগরে রামপুরা ব্রিজের কাছে ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বেলা ১১টায় উত্তরায় অবস্থিত ৫টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা হাউজ বিল্ডিং মোড় ও বসুন্ধরায় অবস্থিত ৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বসুন্ধরা আবাসিক গেটে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন।

দুপুর ১২টা থেকে ধানমন্ডির ১২টি ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে, বনানীতে অবস্থিত ৫টি ইউনিভার্সিটির ছাত্ররা বিক্ষোভ সমাবেশ করছেন।

দুপুরের দিকে ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা রামপুরা ব্রিজের দুই পাশে বাঁশ দিয়ে পথরোধ করে দেন। তা ছাড়া, তারা রামপুরার রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করতে থাকেন। ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আশপাশের অন্যান্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও আন্দোলনে যোগ দেন। সর্বশেষ নর্দান ইউনির্ভাসিটির শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন। শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ করে কবিতা আবৃত্তি, ভাষণ ও স্লোগান দিচ্ছেন। রাস্তা অবরোধ করায় রামপুরায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। দুর্ভোগে পড়ে রামপুরা ও আশপাশের এলাকার হাজার হাজার মানুষ।

রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী মোড়ে, সাভারের তিনটি বেসরকারি মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটি, চট্টগ্রাম, নারায়ণগঞ্জ, রাজশাহী এবং সিলেটেও বিক্ষোভ সমাবেশ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

শিক্ষা খাতে ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে আফতাবনগরের ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সমাবেশে গতকাল পুলিশ হামলা করে। এতে ইউনিভার্সিটির সহকারী রেজিস্ট্রারসহ অন্তত ২০ জন আহত হন। এর প্রতিবাদে আজ বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা।