মেইন ম্যেনু

ভ্রমণ না করেই কিউবায় জিকা রোগী শনাক্ত

কিউবায় প্রথমবারের মতো জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এক তরুণী। দেশটিতে এই প্রথমবারের মতো কেউ বিদেশে ভ্রমণ না করেই কেউ প্রাণঘাতী এই রোগে আক্রান্ত হল। মঙ্গলবার দেশটির কর্তৃপক্ষ একথা জানিয়েছেন।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ২১ বছর বয়সী ওই তরুণীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। যদিও এখন পর্যন্ত তার দেহে এই ভাইরাসের কোন লক্ষণ দেখা যায়নি।

এখন পর্যন্ত কিউবায় ৫ জনের দেহে জিকা ভাইরাস ধরা পড়েছে। অন্যান্য রোগীরা ভেনিজুয়েলায় গিয়ে জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়।

মশাবাহিত জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে সাধারণত প্রাপ্ত বয়স্কদের দেহে সামান্য জ্বর, মাথা ও হাড়ের সংযোগ স্থলে ব্যথাসহ ছোটখাট লক্ষণ দেখা দেয়।

বর্তমানে প্রাণঘাতী এই জিকা ভাইরাসে কোন প্রতিষেধক নেই। আক্রান্ত দেশগুলো এই ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে মশার বংশ বিস্তার রোধ ও মশা নিধনের ওপর জোর দিচ্ছে।

ব্রাজিলে এই ভাইরাসে সবচেয়ে বেশি লোক আক্রান্ত হয়েছে। দেশটির ৭৪৫টি নবজাতক শিশু মাইক্রোসেফ্যালিতে (অস্বাভাবিক ছোট মাথা) আক্রান্ত হয়েছে। অন্তঃসত্ত্বা নারীরা জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে নবজাতক শিশুরা এই রোগে আক্রান্ত হয়।