মেইন ম্যেনু

মঙ্গলে দেখা মিলল দানবাকৃতি জোঁক!

মঙ্গল গ্রহে বসতি স্থাপনে প্রস্তুতি নিচ্ছে নাসা। ইতিমধ্যে অন্য একটি প্রতিষ্ঠান ইচ্ছুকদের কাছ থেকে আবেদনপত্রও গ্রহণ করেছে। এরা ২০৪০ সালের মধ্যে মঙ্গলে নতুন জীবন শুরুর স্বপ্ন দেখছেন। কিছু দিন আগে লোনা পানির হ্রদের সন্ধান মিলেছে। এখনো লাল গ্রহে প্রাণের অস্তিত্বের সন্ধানে চষে বেড়াচ্ছে বিজ্ঞানীদের দৃষ্টি। হঠাৎ করেই বিজ্ঞানীরা দেখলেন, গ্রহটির কোনো এক স্থানে দানবাকৃতি এক জোঁক ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছে।

জোঁক নয়, তবে ঠিক জোঁকের মতো বালিয়াড়ি। নাসার মার্স রিকনাইসেন্স অরবিটার থেকে এক উচ্চ রেজ্যুলেশন ক্যামেরায় ধরা পড়েছে মঙ্গলের বালিয়াড়ি। চলমান এই বালিয়াড়ি মার্টিনাস স্যান্ড ডিউনস থেকে তোলা। চলমান এই বালিয়াড়ি মঙ্গলের পৃষ্ঠে ভূমির ক্ষয়, চলাচল এবং বাতাস ও আবহাওয়ার ধরন প্রমাণ করে।

লক্ষ্য করলে সবাই দেখত পাবেন, বালিয়াড়ির মাঝে ফাঁক রয়েছে। এই অংশটির সৃষ্টি হয়েছে জোর বাতাসের কারণে। এর নিচে ও চারপাশে পাথুরে ভূমি। অন্য এক তত্ত্বে বলা হয়, এটি সম্ভবত পাললিক ভূমি যেখানে একসময় পানি ছিল। পরে তা শুষ্ক হয়ে বালিয়াড়ির সৃষ্টি করেছে। সূত্র: ফক্স নিউজ।



« (পূর্বের সংবাদ)