মেইন ম্যেনু

মদ নিষিদ্ধের পর, উন্মাদ বিহারের সব মদ্যপায়ীরা

মদপানকারীদের পাগলামির উৎপাতে আক্রান্ত হয়েছে ভারতের বিহার প্রদেশ।

মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রী নিতিশ কুমার বিহারে সবরকম মদ জাতীয় পানীয় নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন। তারপর থেকেই মদ সেবনকারীরা মদ না পেয়ে পাগলের মত আচরণ শুরু করেন।

শতশত লোক অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তাদের চিকিৎসা দিতে ডাক্তারদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।

মদ না পেয়ে আক্রান্ত অনেকের শরীরে কাঁপুনি দেখা দিয়েছে। এমনকি অনেকে তাদের পরিবারের সদস্যদেরকেও চিনতে পারছেন না। একজন আবার বাসায় ফিরে সাবান চিবিয়ে খেয়ে ফেলেছেন।

বুধবার পর্যন্ত রাজ্যজুড়ে ৩৮টি মাদকসেবী নিরাময় কেন্দ্রে কমপক্ষে ৭৪৯ জন মদসেবনকারীকে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিহারের রাজ্য স্বাস্থ্য পরিষদ।

৩০ বছর বয়সী মদসেবী যিনি তার পরিবারের সদস্যদেরকে চিনতে পারছেন না তিনি মদ নিষিদ্ধ হওয়ার আগ পর্যন্ত দৈনিক ৬০০ থেকে ১২০০ গ্রাম দেশি মদ পান করতেন বলে জানিয়েছে তার পরিবারের সদস্যরা।

চিকিস্যক ড. আর কে সিং বলেন, ‘সে ঠিকমত দাড়াতেই পারছিল না, এবং বারবার অজ্ঞান হয়ে পড়ছিল।’

একটি টিভি চ্যানেলে দেখা যায় বেত্তিয়া জেলার একজন মদপানকারী মাতাল হওয়ার জন্য সাবান পর্যন্ত চিবিয়ে ফেলছেন।

কিছু মাদকসেবী নিরাময় কেন্দ্র জানিয়েছে অনেকে বেশ কিছু পরিমাণে পত্রিকার কাগজ খেয়ে ফেলছে। এছাড়াও অনেকে মাতাল হওয়ার জন্য ব্যথানাশক ঔষধ সেবন করেছে।

সূত্র : টাইমস অফ ইন্ডিয়া