মেইন ম্যেনু

মধ্যরাতে ক্যাটকে নিয়ে লং ড্রাইভে সালমান

একদিকে রণবীর কাপুর। অন্যদিকে ক্যাটরিনা কাইফ। এর মাঝে আছেন সালমান খান। এই তিন জনকে নিয়ে ঘুরে ফিরেই বলিউডে চলছে নানা জল্পনা কল্পনা। আলোচনা সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতেও তারা তিনজন।

সম্প্রতি রণবীরের সাথে ব্রেকআপ হয় ক্যাটরিনার। এখান থেকেই শুরু আলোচনা। এরপর এই আলোচনায় আরেকমাত্রা যোগ করেন সালমান খান। শুরু হয় সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফের পুরনো সম্পর্ক নিয়ে।

কেন না, বিচ্ছেদেরে পর প্রায় সময়ই ক্যাটরিনা কাইফকে দেখা যায় সালমান খানের সাথে। আর এ নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। অনেকেই বলতে শুরু করেন যে, ক্যাটরিনার সাথেই সালমান তার পুরনো সম্পর্ক ঝালিয়ে নিচ্ছেন।

এরমধ্যে রণবীরের সাথে ব্রেকআপের আগে সালমানের সাথেই নাকি এ নিয়ে দীর্ঘক্ষণ কথা বলেছিলেন ক্যাটরিনা। এরপরই নাকি রণবীরের সাথে বিচ্ছেদ ঘটানি নায়িকা। এছাড়া ক্যাট যাচ্ছেন সালমান খানের শুটিং সেটে। আবার কখন সালমান ছুটে আসছেন ক্যাটের শুটিং সেটে। যা জল্পনার আগুনে ঘি ঢেলে দেয়ার মতই ঘটনা।

এদিকে এবার রীতিমতো সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে সালমান খান ও ক্যাটরিনা। তারা দু’জন যখন শুটিং শেষে লং-ড্রাইভে বের হলেন তখন এমন খবরে তো সবারই চক্ষু চরকগাছ! সবাই বলছেন এখন, তাহলে সালমান খানের সঙ্গেই কি ক্যাটরিনা গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন?

জানা গেছে, নিজের আপকামিং ফিল্ম ফিতুরের প্রচারে গিয়েছিলেন ক্যাট। তার সঙ্গে ছিলেন ফিতুরে তার বিপরীতে অভিনয় করা আদিত্য রয় কাপুরও। ফিল্ম সিটির সেটে তখন শ্যুটিং চলছিল। তখন সেটের সবাইকে অবাক করে দিয়ে সেখানে উপস্থিত হন সালমান।

সূত্র বলছে, ‘এক্স বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে কথা বলতে স্টেজ থেকে নেমে আসেন ক্যাট। তার সঙ্গে সালমানের দীর্ঘক্ষণ কথা হয়। সেখানেই শেষ নয়। এরপর তড়িঘড়ি করে নিজের ড্রাইভারকে ক্যাট চলে যেতে বলেন ক্যাট সুন্দরী।

অন্যদিকে শ্যুটিং শেষ হওয়ার জন্য সালমান সেখানেই অপেক্ষা করছিলেন। শ্যুটিং শেষ হলে এক গাল হেসে ক্যাট উঠে পড়েন সালমানের গাড়িতে।’ এরপর গভীর রাত পর্যন্ত তারা লং ড্রাইভে গিয়েছিলেন বলে সূত্রের দাবি।