মেইন ম্যেনু

মন্ত্রীর জন্য রোদে সড়কে শিক্ষার্থীদের ঘন্টা ব্যাপী দাঁড় করিয়ে রাখলেন প্রিন্সিপাল

টিপু সুলতান (রবিন), সাভার প্রতিনিধি : সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে বরন করে নিতে আশুলিয়ার একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কয়েক শত শিক্ষার্থীকে প্রায় ঘন্টা খানেক সময় প্রখর রোদে দাড় করিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোদের মধ্যে কোমলমতী শিক্ষার্থীকে দাড় করিয়ে রাখার বিষয়ে জানতে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষের নিকট জানতে চাওয়া হলে তিনি স্কুলের সামনে ফুটওভার ব্রীজ দাবীর কথা জানান। তবে শিক্ষার্থীরা এ বিষয়ে অবগত নয় বলে জানায়।

শনিবার দুপুরে টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কের রিজিড পেভমেন্ট-এর উদ্বোধন করতে সড়ক পরিবহন মন্ত্রী আসলে তাকে ফুল দিয়ে বরন করে নিতে দি টাঙ্গাইল রেসিডেনসিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল লতিফ নিজ প্রতিষ্ঠানের অন্তত ৩ শতাধিক শিক্ষার্থীকে সড়কে দাড় করিয়ে রাখেন।

স্থানীয় বাসিন্দা ইমতিয়াজ উল আলম ও রুবেল আহমেদ জানান, সকালে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কের রিজিড পেভমেন্ট উদ্বোধন করতে আসার কথা থাকলেও তিনি কিছুটা সময় বিলম্ব করে দুপুরের দিকে আসেন। মন্ত্রীর আসার খবর পেয়ে উদ্বোধনস্থলের পাশের “দি টাঙ্গাইল রেসিডেনসিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের” অধ্যক্ষ আব্দুল লতিফ প্রায় ৩ শতাধিক শিক্ষার্থীসহ ফুল নিয়ে মন্ত্রীর আসার অপেক্ষায় থাকেন।

পরে মন্ত্রী কিছুটা সময় বিলম্ব করে ঘটনাস্থলে আসলে ওই অধ্যক্ষ আব্দুল লতিফ প্রখর রোদের মধ্যে কোমলমতী শিক্ষার্থীদের প্রায় ঘন্টাখানেক সময় দাড় করিয়ে রেখে মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে বরন করে নেয়। এসময় রোদের মধ্যে দাড়িয়ে থেকে কয়েক শিক্ষার্থী মাথা ঘুরে পড়ে যায় বলেও জানান ওই স্থানীয় বাসিন্ধা ইমতিয়াজ।

এদিকে, এবিষয়ে অভিযুক্ত অধ্যক্ষ আব্দুল লতিফ জানান, “আমাদের শিক্ষার্থীদের সড়ক পারাপারের জন্য একটি ফুট ওভার ব্রীজ প্রয়োজন। আর এজন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগে ব্যাপারটি জানালেও তেমন কোন কাজে আসেনি। তাই আজ মন্ত্রী এখানে সড়ক পরিদর্শনে আসবেন বলেই মন্ত্রীকে অর্ভ্যথনা দিতে শিক্ষার্থীদের সড়কের পাশে দাড় করিয়ে রাখেন কিন্তু মন্ত্রী মহোদয়ের আসতে বিলম্ব হওয়ায় রোদ থেকে শিক্ষার্থীদের সরিয়ে নেওয়া হয়।”

তবে সড়কে দাড়িয়ে থাকা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষার্থী জানায়, আজ বেলা ১১টার দিকে তাদের পিন্সিপাল স্যার ক্লাস চলাকালীন সময়ে তাদের সড়কে দাড়িয়ে থাকার নির্দেশ দেয়। সঠিক কি কারণে তাড়া সড়কে দাড়িয়েছে তা তাদের জানা নেই।