মেইন ম্যেনু

মরতে এসেও মহাবিপদ!

আত্মহত্যা অনেকেই করেন। কেউ হতাশায় আবার কেই প্রেমে ব্যর্থ হয়ে। এরকম নানান কারণে মানুষ আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। মুকেশও চেয়েছিলেন আত্মহত্যাই করতে কিন্তু তা আর হলো কই? তাহলে?

মুকেশ সিদ্ধান্ত নিলেন নদীতে ঝাঁপ দিয়েই আত্মহত্যা করবেন। তো গেলেন নদীর তীরে এবং ঝাঁপ দিলেন চোখ বন্ধ করে। কিন্তু ঝাঁপ দিয়ে মুকেশের বোধোদয় হলো কাজটা মোটেও ঠিক হয়নি। কেননা তিনি জানতেন না ওই নদীটি কুমিরের দখলে। কিন্তু ততক্ষণে করার তো কিছু নেই। আর কুমিররাও উপাদেয় খাবার ভেবে চারদিক থেকে হা করে ছুটে আসে।

মুকেশ তো হতভম্ভ। মরতে এসেও বিপদ? চিৎকার শুরু করেন বাঁচার জন্য। আর তার চিৎকারে ছুটে আসে এলাকার লোকজন। তারা কুমিরগুলোকে ইটপাটকেল দিয়ে তাড়ায়। সে সময় ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ও এসে তাকে উদ্ধারে সাহায্য করে। মুকেশ সে যাত্রায় রক্ষা পেলেও কুমিরদের আক্রমণে কিছুটা আহত হন।

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে জানা যায় মুকেশ কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন।