মেইন ম্যেনু

মশারা অকৃতজ্ঞ !

তিব্বতের প্রভাবশালী ধর্মগুরু দালাই লামা বলেছেন, মশারা অকৃতজ্ঞ। তারা কেবল রক্ত পান করে যায়। শুক্রবার ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে মার্কিন দূতাবাস স্কুলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

১৯৫৯ সালে তিব্বতের একটি গণ-অভ্যুত্থান ঠেকাতে চীনা সেনাবাহিনী হস্তক্ষেপ করলে ভারতে পালিয়ে যান বর্তমান দালাই লামা তেনজিং গিয়াতসো। সেই থেকে তিনি ভারতে নির্বাসিত জীবনযাপন করছেন। শান্তিতে এই নোবেল বিজয়ীকে একজন ‘বিচ্ছিন্নতাবাদী’ হিসেবে বিবেচনা করে চীন। আগামী গ্রীষ্মে ৮১ বছরে পা দিতে যাচ্ছেন এই বৌদ্ধ ধর্মগুরু।

স্কুলের অডিটোরিয়ামে দালাই লামা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে এক ঘণ্টা ৪০ মিনিট টানা কথা বলেন। মাঝে শিক্ষার্থীদের বেশ কিছু প্রশ্নের জবাবও দেন তিনি। এ সময় বেশ কিছু বিষয় নিয়ে তাদের সঙ্গে মজার মজার কথা বলেন দালাই লামা।

জাপানি খাবার সম্পর্কে তিনি বলেন, এসব খাবার অনেক সময় আসল নয়, অলংকরণ বলে মনে হয়। তার কাছে মাঝে মাঝে মনে হয়, জাপানি খাবার খাওয়ার পর লোকজনের হয়তো বাইরে গিয়ে আবার রেস্তোরাঁ খুঁজতে ইচ্ছা করে।

দালাই লামা বলেন, যখন তার মন ভালো থাকে এবং সুস্থবোধ করেন, তখন তিনি মশাদের তার দেহের রক্ত পান করার সুযোগ দেন। রক্ত পান করতে করতে মশাদের পুরো দেহটাই লাল হয়ে যায় এবং এরপর উড়ে যায়। তবে তাদের মধ্যে কোনো কৃতজ্ঞতাবোধ নেই। মশাদের এই কর্মকাণ্ড দেখে বিজ্ঞানীদের কাছে তার জানতে ইচ্ছা করে যে, পোকারা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে সমর্থ কি না।

নিজের কোনো পোষা প্রাণী আছে কি না- জানতে চাইলে দালাই লামা বলেন, তার একটি পোষা বিড়াল আছে। তিনি বৃদ্ধ হচ্ছেন, তার বিড়ালটিও বৃদ্ধ হচ্ছে। তিনি সেই জরাগ্রস্ত বৃদ্ধ বিড়ালটিকে ভেংচি কাটেন এবং এটা খুবই মজার।