মেইন ম্যেনু

মসজিদকে মাদরাসার ছাত্রাবাস হিসেবে ব্যবহার করা যাবে কি?

অনেক মসজিদে দেখা যায় স্থায়ীভাবে কোনো মাদরাসার ছাত্রাবাস বানিয়ে নেয়া হয়। এটা কি ইসলামে জায়েজ আছে? একটি মসজিদ তিনতলা সেই মসজিদের প্রথম তলায় নামাজ হয় আর বাকী দুই তলায় হেফজখানা বসানো হয়েছে, সেখানে ছাত্ররা সারাক্ষণ থাকে এবং লেখাপড়া করে। এমনভাবে মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করা সম্পর্কে ইসলামের দিক-নির্দেশনা কি?

কোনো মসজিদকে স্থায়ীভাবে কোনো মাদরাসার ছাত্রদের ছাত্রাবাস বানানো জায়েজ নেই। শরীআতের দৃষ্টিতে মসজিদের সব তলার একই হুকুম। অবশ্য কোথাও যদি এমন হয় যে, মাদরাসার ছাত্রদের থাকার জায়গা সংকুলন হচ্ছে না এবং মাদরাসার কর্তৃপক্ষ ছাত্রদের থাকার জায়গা করতে পারছে না,

সেক্ষেত্রে ছাত্রদের যদি লেখাপড়া ক্ষতি হওয়ার অশঙ্কা থাকে তাহলে প্রাপ্তবয়স্ক ছেলেদের পড়াশুনা ও থাকার জন্য অস্থায়ীভাবে মসজিদ ব্যবহার করার অবকাশ রয়েছে। উত্তম হলো সেক্ষেত্রেও নফল ইবাদতের নিয়তে অবস্থান করা। আর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব অন্য কোথাও জায়গার ব্যবস্থা করা এবং ছাত্রদের সেখানে সরিয়ে নেয়া। [ফাতাওয়ায়ে রহীমিয়া ৯/১৯৯]