মেইন ম্যেনু

মহররমকে সামনে রেখে চলছে কাসেদ কাফেলার শোকবহ আগমন ধ্বনী

মহররমকে সামনে রেখে মরু কারবালার প্রান্তরের মহাশোকের সৃতিকে ধারন করে ফরিদপুরের গ্রামের বাড়ী বাড়ী গুলোতে চলছে কাসেদ কাফেলার শোকবহ আগমন। “হায় এমাম হায় হোসাইন” শব্দে আকাশ বাতাস ভারী হচ্ছে ১লা মহররম থেকে যা চলবে ১০ই মহররম পর্যন্ত।

রক্তের লাল রংয়ে লাল পোশাকের সাজে হাতে তোলয়ার ও পতাকা নিয়ে দল গুলো দিন থেকে রাত অবধি তারা গ্রামের বাড়ীতে বাড়ীতে উপস্থিত হচ্ছেন। গ্রামের কি মুসলিম কি হিন্দু তারাও তাদের সাধ্য মতো চেষ্টা করছেন তাদের জন্য কিছু না কিছু করতে।

মহান আল্লাহ পাক রাব্বুল আলামিন আপন কুদরতে বহু অলৌকিক নিদর্শন দ্বারা মহররম দিবসকে মহিমান্বিত করেছেন।

‘‘৬১ হিজরী সনের মহররম আশুরা কারবালা মরু প্রান্তরের নিদর্শন” মোহম্মদী উন্মত তথা হোসাইনী মুসলমানের জন্য একান্ত তাৎপর্যপূর্ন তথা মুক্তি ও কল্যানের বিশেষ ওসিলা হিসেবে বিবেচিত।

এ বিষয়ে কাসেদ কাফেলার একটি দলের প্রধান রেজাইল করিম কালু জানান, মরু কারবালা প্রান্তরে এমাম ও হোসাইন যে কষ্ট পেয়েছে তাহাকে বুকে ধারন করে গত ১লা মহররম থেকে ১০ই মহররম পর্যন্ত আমরা পথে পথে ঘুরে কিছুটা কষ্ট বোঝার চেষ্টা করছি এ অন্তরে।