মেইন ম্যেনু

মহাবিপদেও সদা হাস্যোজ্বল প্যারিসে বাঙালীর বন্ধু এম.এ তাহের

ওমর ফারুক, প্যারিস (ফ্রান্স) সংবাদদাতা: কঠিন বিপদের মধ্যেও সদা হাস্যোজ্বল, কমিউনিটির সাধারণ মানুষের দুঃখ দুর্দশা লাঘবে সদা চঞ্চল, যেকোনো জনহিতকর কাজে অগ্রগামী আর নবাগতদের আশ্রয়দাতা হিসেবে পরিচিত ফ্রান্স বিএনপির সাধারণ সম্পাদক, জনপ্রিয় শিল্পী গোষ্ঠি স্বরলীপির প্রধান উপদেষ্ঠা ও ফ্রান্স বাঙালী কমিউনিটি নেতা এম এ তাহের।

দীর্ঘদিন প্যারিসে বসবাসকারী এ মানুষটি জাতি-ধর্ম-বর্ণের ভেদাভেদ ভুলে, রাজনৈতিক মতাদর্শের উর্দ্ধে উঠে প্রবাসি বাঙালীর ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। ছাত্রজীবনে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা-শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ছাত্র রাজনীতিতে যোগদানের মাধ্যমে তিনি রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন। দেশে থাকাকালিন তাকে নানা ঘাত-প্রতিঘাতের মুখোমুখি হতে হয়েছে। বাধাবিপত্তি উপেক্ষা করে একসময় প্রবাসে পাড়ি জমিয়ে মানবতা ও মানবাধিকারের স্রেষ্ঠ দেশ ফ্রান্সে রাজনৈতিক আশ্রয় গ্রহণ করেন। এরই মধ্যে কেটে গেছে বহু বছর। ফ্রান্সে জাতীয়তাবাদি রাজনীতিকে নিয়ে গেছেন এক অনন্য উচ্চতায়।

কঠোর পরিশ্রমে প্যারিসে গড়ে তুলেছেন গান্ধি মহল নামে একটি রেস্টুরেন্ট। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত নানা দরকারে সেখানে বাঙালীরা ভিড় জমায়। শত ব্যস্ততার মাঝেও সবার সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করেন তিনি।

তিনি আওয়ার নিউজ বিডিকে বলেন, আমরা যখন প্রবাসে আসি তখন একটা ভালো কথার সাহায্য কারো কাছে পায়নি, সামান্য তথ্যের জন্য বহু কষ্ট করেছি, ভাষা রপ্ত করতে এক পাকিস্তানির পেছনে লেগে থাকতাম। বিরক্ত হয়ে সে একসময় আমাকে এড়িয়ে চলতে শুরু করে। এরপরও শেখার আগ্রহ থেমে থাকেনি। তিনি আরো বলেন, সৎ উদ্দশ্যে সাফল্য লাভের সাধনা আর পরিশ্রমের মানুষিকতা থাকলে সফলতা আসবেই। তবে নিজে সফল হলেই চলবে না, সব ভদাভেদ ভুলে দেশ ও জাতিকে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়ার প্রাণন্তর চেষ্টা করতে হবে।