মেইন ম্যেনু

মাগুরার শ্রীপুরে ইভটিজারকে গণধোলাই

মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার মদনপুর গ্রামের এক গৃহবধূকে উত্যক্ত করার দায়ে মুজদিয়া গ্রামের ইসরাইল খোন্দকার (৩৫) নামের এক ইভটিজারকে গনধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। গনধোলাইয়ের শিকার উক্ত ইভটিজার শুক্রবার রাত থেকে অদ্যবধি পুলিশ পাহাড়ায় শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসারত রয়েছে।

ভূক্তভোগী পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, (ইভটিজিংয়ের স্বীকার গৃহবধূ পারুল বেগমের স্বামী আব্দুল্লাহ অভিযোগ করে বলেন ) উপজেলার মুজদিয়া গ্রামের আতর আলী খোন্দকারের পুত্র ইসরাইল খোন্দকার (৩৫) মদনপুর গ্রামের জনৈক গৃহবধূকে ( আব্দুল্লাহর স্ত্রী পারুল বেগমকে) দীর্ঘদিন ধরে সময়ে-অসময়ে বিভিন্ন ধরনের কু-প্রস্তাব,এসিড নিক্ষেপ,অপহরণ ও বোমা মারাসহ বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসমূলক ভয়ভীতি প্রদর্শনপূর্বক উত্যক্ত করে আসছিল।

গত শুক্রবার রাতে পরিবারের সবার অজান্তে উক্ত লম্পট যুবক নিজের মুখ-মাথা কাপড় দিয়ে বেঁধে গোপনে উক্ত গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে। গৃহবধূ বিষয়টি বুঝতে পেরে চুপিসারে ঘর থেকে বের হয়ে ঘরের দরজা বাইরে থেকে বন্ধ করে তালা লাগায়ে স্থানীয় লোকজনদের খবর দেয়। স্থানীয় লোকজন দ্রুত ঘটনাস্থালে ছুটে এসে উক্ত লম্পটকে হাতে পেয়ে বেধড়ক গনধোলাই দিয়ে পুলিশের নিকট সোপর্দ করে। পুলিশ তাকে আটকের পর অবস্থার বেগতিক দেখে তড়িঘড়ি করে পুলিশ পাহাড়্য়া শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এবিষয়ে শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রেজাউল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,যেহেতু সে অসৎ উদ্দেশ্যে রাতের বেলা পরের ঘরে প্রবেশ করে অনধীকার চর্চা করেছে। সেহেতু ভূক্তভোগী পরিবারের লোকজন অভিযোগ করলে তার বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাকে অতিরিক্ত মারধর করার কারনে পুলিশ প্রহরায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।