মেইন ম্যেনু

মাগুরায় বৃষ্টির অভাবে আমের গুটি ঝরে যাচ্ছে

মাগুরা প্রতিনিধি : মাগুরায় এবার চলতি বছরে ৪ উপজেলায় আমের মুকুল আশাতীত ভাবে দেখা দিলেও পরিচর্যার অভাবে তা ঝরে গিয়ে ফলন বিপর্যয়ের আর্শকা দেখা দিয়েছে। অনেক দিন যাবৎ বৃষ্টি না হওয়াতে আমের গুটি ঝরে যাচ্ছে।

চৈত্রের তীব্র খরার শেষে বৈশাখের শুরুতে প্রতিটি আম গাছের মুকুল শুকিয়ে ঝরে যাচ্ছে। আমচাষীরা মনে করছেন, এখন যদি বৃষ্টি হয় তাহলে আমের গুটি অনেকটা শক্ত হবে। ফলে ফলন বিপর্যয় অনেকাংশে রোধ হবে।

জেলায় ৪ উপজেলায় মোট ১ হাজার হেক্টর জমিতে আমের আবাদ হয়েছে বলে কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে।এর মধ্যে মাগুরা সদরে ৪৫০ হেক্টর, শ্রীপুরে ৩২৫ হেক্টর আমের চাষ হয়েছে। যার হেক্টর প্রতি ২০ মেট্রিকটন আম উৎপাদন হবে বলে কৃষি মন্ত্রনালয় বিভাগের কর্মকর্তা মনে করছেন।

বেশ কয়েক বছর ধরে জেলার বিভিন্ন এলাকায় ব্যবসায় ভিত্তিতে আম চাষ শুরু হয়েছে। তবে আমের পরিচর্যার ব্যাপারে অভিজ্ঞতা না থাকায় মাগুরায় আম চাষীরা প্রতিবছরই ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে। প্রতি মৌসুমে আম গাছের প্রতিটি শাখায় মুকুল ভরে যায় কিন্তু শেষ পর্যন্ত এ মুকুল থেকে পরিচর্যা জ্ঞান না থাকা এবং কৃষি বিভাগের এ ব্যাপারে কোন পরিকল্পনা না থাকায় কৃষকদের ভাগ্যে আমের ফলন জোটে না। মাগুরা জেলার বিভিন্ন গ্রামে আমের বাগান গড়ে উঠেছে।

বিশেষ করে মাগুরায় ফজলী, ল্যাংড়া , হিমসাগর, আম্রপালি, গোপাল ভোগ, বোম্বাই, তোষা প্রভৃতি জাতের আমের আবাদ হয়। জেলার শত্র“জিৎপুর, বিনোদপুর, কুচিয়ামোড়া, ইছাখাদা, হাজরাপুর, রাঘবদাইড়, খালিশপুর, আলাইপুর, হাজরাপুর, রাউতারা, কাশিনাথপুর, শ্রীকোল, কানুটিয়া, গ্রামে আমের বাগান গড়ে উঠেছে।

আম চাষীরা এবার আমের মুকুরের ব্যাপকতা দেখে উৎফুল্ল হয়ে নানান স্বপ্ন দেখেছিলেন। কিন্তু আমের গুটি আসার আগেই মুকুল ঝরে পড়ায় তাদের আশা ভাটি পড়েছে। তার পরও যে আমের গুটি ছিল তা অনাবৃষ্টির অভাবে ঝরে পড়ছে।

এ ক্ষেত্রে মাগুরা জেলায় আমের চাষকে উৎসাহিত করতে কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগকে তাদের উপর দেয়া সরকারি দায়িত্ব যথাযথ ভাবে পালন করা উচিত বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করেন।



« (পূর্বের সংবাদ)