মেইন ম্যেনু

মাটির নিচের যে ৭ সবজি নিয়মিত খাওয়া উচিত

সুস্বাস্থ্যের জন্য নিয়মিত সবজি খাওয়া প্রয়োজন তা সবাই জানি। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় সবাই কম বেশি সবজি খেয়ে থাকি। এর মধ্যে মাটির নিচের কিছু সবজি আছে যা স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারি। মাটির নিচের সবজিগুলোর মধ্যে অন্যতম হল আলু, মিষ্টি আলু, শালগম, বিট ইত্যাদি। ভিটামিন, মিনারেল, এবং ফাইবার, অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এই সবজিগুলো স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারি। এই সবজিগুলো রান্না করার চেয়ে সিদ্ধ খাওয়া ভাল।

১। পেঁয়াজ

সব রান্নায় ব্যবহৃত সবচেয়ে পরিচিত উপাদান হল পেঁয়াজ। কাঁচা পেঁয়াজের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। সালাদে কাঁচা পেঁয়াজ ব্যবহার করুন, এটি ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ করে।

২। গাজর

গাজর দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি করে থাকে। এটি চোখের গ্লুকোমা এবং ছানি পড়াকে বাধা দেয়। এমনকি এটি হৃদরোগ এবং কোলন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে থাকে। এর বিটা ক্যারেটিন, ফাইবার মেদ কাটাতে সাহায্য করে। এছাড়া গাজরে আছে ভিটামিন সি, এ, কে, ই, পটাশিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম।

৩। মিষ্টি আলু

আপনি কি জানেন পৃথিবীতে ৪০০ এর বেশি প্রজাতির মিষ্টি আলু আছে? সাদা, হলুদ, কমলা, গোলাপী এমনকি বেগুনী রঙেরও মিষ্টি আলু রয়েছে। মিষ্টি আলুতে অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান আছে যা রক্তের সুগার নিয়ন্ত্রণ করে।

৪। রসুন

রসুন হল অ্যান্টিভাইরাল, অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি ফাঙ্গাল এবং অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি উপাদান সমৃদ্ধ সবজি। ক্যান্সার, হৃদরোগ প্রতিরোধ করার পাশাপাশি এর রয়েছে নানা ওষধি গুণ। এছাড়া ম্যাঙ্গানিজ এবং ভিটামিন বি৬, ফসফরাস, ভিটামিন বি১, কপার, ভিটামিন সি, সেলিয়াম, ক্যালসিয়ামের অন্যতম উৎস এটি।

৫। মুলা

মুলা সবজিটি অনেকেই খেতে চান না। কিন্তু এই মুলায় রয়েছে ভিটামিন সি যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে এবং কোলেস্টেরল কম করে দেয়। এটি ইউরিন ইনফেকশন দূর করে সাহায্য করে। অতিরিক্ত মুলা খাওয়ার ফলে পেটে গ্যাসের সমস্যা হতে পারে। তাই সীমিত পরিমাণে মুলা খাওয়া উচিৎ।

৬। শালগম

শালগম একধরণের শিকড় জাতীয় সবজি। খুব বেশি মানুষ এটি খেতে পছন্দ করেন না। কিন্তু শালগম হাড়ের শক্তি বৃদ্ধি করে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে থাকে। এছাড়া ফুসফুসের স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে সাহায্য করে এই শালগম। সালাদ বা রান্না করে খেতে পারেন শালগম।

৭। ব্রকলি

ব্রকলিতে প্রচুর ক্যান্সার প্রতিরোধক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। এক সমীক্ষায় দেখা গেছে যারা নিয়মিত cruciferous শ্রেণির সবজি অর্থাৎ ফুলকপি, বাঁধাকপি, ব্রকোলির মতো সবজি খেয়ে থাকেন তাদের ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশ কমে যায়।