মেইন ম্যেনু

মাত্র ১৬ বছর বয়সে বিমান উড়িয়ে রেকর্ড গড়লেন এই তরুণী

সবে মাত্র ১৬ বছরে পড়েছেন। ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে এখনও ২ বছরের অপেক্ষা। কিন্তু ভারিজার স্বপ্ন আকাশ ছোঁয়ার। আর তাই তো ড্রাভিং লাইসেন্স নয়, তার মূল লক্ষ্য ছিল ফ্লায়িং লাইসেন্স পাওয়া।

অবশেষে সেই স্বপ্ন সফল হল ষোড়শি ভারিজার। সোমবার হাতে চলে এল ফ্লায়িং লাইসেন্স। আর বিকেলে বরোদার আকাশে টানা ২০ মিনিট ওড়াল সেসনা এয়ারক্রাফ্ট।

সম্ভাবত এখনও পর্যন্ত গুজরাতের সর্বকনিষ্ট পাইলট ভারিজা।

টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে দেওয়া একটি সাক্ষাত্কামরে ভারিজা জানিয়েছেন, ‘আমার জীবনের সেরা জন্মদিনের উপহার পেলাম আজ। সেসনা ১৫২ চালানোর অভিজ্ঞতা অনন্য। উপর থেকে গোটা শহরটা দেখতে পাচ্ছিলাম। বেশ খানিকটা উঁচুতে উঠে আমার প্রশিক্ষক প্লেনের কনট্রোল আমার হাতে ছেড়ে দেন।’

অষ্টম শ্রেণী থেকেই প্লেন ওড়ানোর প্রতি ঝোঁক ছিল ভারিজার। ‘আমার বাবার স্বপ্ন ছিল পাইলট হওয়ার। সেখান থেকেই আমি অনুপ্রেরণা পাই। আমার মা-বাবা সব সময়ে আমার পাশে থেকে সাহস দিয়েছেন। ’ গত বছর গুজরাত ফ্লায়িং ক্লাবে নাম লেখায় ভারিজা। নবম শ্রেণীর ছাত্রী ভারিজার এখন একমাত্র লক্ষ্য ভারতীয় বিমান বাহিনীর পাইলট হওয়া।