মেইন ম্যেনু

মাত্র ২টি ধাপ ফলো করে জেনে নিন হোয়াটস্অ্যাপের গোপন চ্যাটিং

অনেকদিন ধরেই লক্ষ্য করছেন পরিবর্তনটা। কিন্তু আপনার তিনি মুখ ফুটে কিছুই বলেন না। জিজ্ঞেস করলেই এড়িয়ে চলেন। তবে আপনি নিশ্চিত কিছু একটা ঘটছেই। মোবাইলে খুটুরখুটুর করার সময় তাঁর মুখের সেই অদ্ভুত দীপ্তি আপনি লক্ষ্য করেছেন। আপনি জানেন, সেখানেই লুকিয়ে আছে সন্দেহের ভূত। এও আঁচ করতে পারেন আপনাদের সম্পর্কে হয়তো কোনও তৃতীয় ব্যক্তির আবির্ভাব ঘটেছে। এদিকে আপনার সঙ্গী দারুণ স্মার্ট। তাঁকে হাতেনাতে ধরা ভীষণ মুশকিল। এসব ক্ষেত্রে প্রমাণ ছাড়া কারোর দিকে আঙুলও তোলা যায় না। এখন তো আবার সবাই সুখ-দুঃখের গল্প করে হোয়াটস্অ্যাপে। সেই হোয়াটস্অ্যাপও এখন সুরক্ষিত। সব এনস্ক্রিপটেড। সেন্ডার-রিসিভার ছাড়া কেউ নাগাল পায় না। স্বয়ং হোয়াটস্অ্যাপ সার্ভারও না। ফলে সেখানে যদি কারোর সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয়, টের পাওয়া সম্ভব নয়। সেটি যদি একবার খতিয়ে দেখতেন, সঙ্গীর বর্তমান ভাবমূর্তির কিছুটা হলেও হকিকত জানতে পারতেন। এমনটা কিন্তু সম্ভব। শুধু সঙ্গীর স্মার্টফোনটি আপনার আয়ত্তে থাকতে হবে জাস্ট দু-মিনিট। ব্যাস, তা হলেই জানতে পারবেন তিনি কার কার সঙ্গে কথা বলেন, কী কথা বলেন, একেবারে হাতেনাতে। কী করতে হবে দেখুন –

১] কোনও একটি ছুতোয় সঙ্গীর থেকে স্মার্টফোনটি নিন। এবার ল্যাপটপ বা ডেক্সটপে web.whatsapp.com সাইটে এন্টার করুন। একটি পেজ খুলবে। নীচে ছবি দেখুন, এরকম –

79F0B63D-DB44-4804-A016-C80E3896D649_L_styvpf.gif

২] এবার সঙ্গীর হোয়াটস্অ্যাপ খুলুন। একটু ঘাঁটলে পেয়ে যাবেন WhatsApp Web অপশন। যেখানে New Group, New Broadcast আছে, তার নীচেই পেয়ে যাবেন WhatsApp Web অপশন। সেই অপশনে আঙুল ছোঁয়ান। খুলে যাবে স্ক্যান কোড পেজ।

৩] এবার স্মার্টফোনটি তুলে ধরুন web.whatsapp.com পেজের সামনে। স্মার্টফোনটির পেজে স্ক্যান করার জায়গাটি খাপেখাপ তুলে ধরুন ওয়েবসাইটের সাদাকালো ছোপছোপ অংশে। কম্পিউটার আর স্মার্টফোনের প্রত্যেকটি কোণা মিলে গেলেই খুলে যাবে আপনার পার্টনারের হোয়াটস্অ্যাপ পেজ। সঙ্গীকে ফোন ফেরত দিয়ে দিলেও তার হোয়াটস্অ্যাপ খোলা থাকবে আপনার ডেস্কটপ বা ল্যাপটপে। তিনি কার সঙ্গে চ্যাট করছেন, চ্যাটে কী লিখছেন, কী ছবি শেয়ার করছেন, আপনি সব জেনে যাবেন ঘরে বসেই। প্রমাণ স্বরূপ প্রিন্ট স্ক্রিনও তুলে রাখতে পারেন।

2C969138-63FA-4FFC-84B6-5682A34D152E_L_styvpf.gif