মেইন ম্যেনু

মাদরাসা শিক্ষকের নির্যাতনে শিক্ষার্থী হাসপাতালে

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : উলিপুরে মাদ্রাসা শিক্ষককের অমানুষিক নির্যাতনের শিকার হয়ে হেফজ শাখার এক শিশু শিক্ষার্থী এখন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। নির্মম এ ঘটনাটি ঘটেছে, সোমবার দুপুরে জেলার উলিপুর উপজেলার তবকপুর ইউনিয়নের কাটাখালিপাড় আনারুল সুন্নাহ হাফিজিয়া মাদরাসায়।

জানা গেছে, ঐ মাদরাসার হেফজ শাখার আবাসিক শিক্ষার্থী মোঃ ওজায়ের(১৪) গত রোববার বিকেলে বাড়ী থেকে আসার সময় ভুলে তার পিতার মোবাইল সেটটি নিয়ে আসে। বিষয়টি মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ নূর মোহাম্মদ জানতে পেরে তাকে ডেকে নেয়। মাদরাসায় মোবাইল ব্যবহার নিষিদ্ধ বলে ক্ষিপ্ত হয়ে ঐ শিক্ষক উর্পযুপরি তাকে নির্দয়ভাবে বেত্রাঘাত করতে থাকে। বেত্রাঘাতে তার দুই পা, হাত ও পিঠে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম হয়। হুজুরের এমন ভয়ংকর আচরণে আবাসিক ছাত্রদের মাঝে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি হলে তারা ছুটোছুটি শুরু করে। আহত ছাত্রের আর্তনাদে আশপাশের লোকজন এসে তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উলিপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করায়। সে উপজেলার তবকপুর ইউনিয়নের বামনাছড়া ফারাজিপাড়া গ্রামের হাবিবুর রহমানের পূত্র।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ.এইচ.এম জামেরী হাসান বিষয়টি অমানবিক উল্লেখ করে এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দাখিলের পরামর্শ দেন।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ এস.কে আব্দুল্লাহ আল সাইদ জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে, ব্যবস্থা নেয়া হবে।