মেইন ম্যেনু

মাদারীপুরে কানের ময়লা পরিস্কারকারি ডাক্তার

মাদারীপুর প্রতিনিধি: মাদারীপুরের শহরে সহজেই দেখা মেলে কানের ময়লা পরিস্কারি ডাক্তাদের। তবে এ পেশায় যারা কাজ করেন তারা তাদের কানের ময়লা পরিস্কারকারি ডাক্তার নামে পরিচয় দিয়ে থাকেন।

মাদারীপুরে অনেক অনেক বছর আগে থেকেই এদের দেখা যায় এ পেশায়, এখনো দেখা যায় তাদের। নতুন করে এদের আর্বিভাব হয়েছে তা না, এ পেশা অনেক পুরানো। এখনো তার আগারে মতোই এ পেশায় নিয়জিত থেকে তাদের জিবিকা নির্ধারন করে থাকে। তবে বিষয়টি হলো এ ডিজিটাল যুগে এ ধরনের কাজ করে তারা আগের মতোই এ পেশায় নিয়জিত থেকে বিভাবে জিবিকা নির্ধারন করতে পারেন।

এ সময়ের যুগের মানুষ সাধারনত্ব অনেক সচেতনতার সাধে বসবাস করে থাকে। তাবুও অনেকেই আছেন নিজের কানের ময়লা পরিস্কারের জন্য আসেন এই কানের ময়লা পরিস্কারি ডাক্তার নাম ধারিদের কাছে। তেমনি একজন নামধারি ময়লা পরিস্কারি ডাক্তার মো: নজরুল হোসেন মুজাজেদ্দ রহমান (৪২) তার বাড়ি মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার বালিগ্রাম ইউনিয়নে সে এ পেশায় দীর্ঘ দিন যাবৎ কাজ করে আসছেন।

তিনি বলেন, এ পেশায় এসেছেন নাক, কান বিভাগের ডাক্তারের কাছ থেকে প্রশিক্ষন নিয়ে, পরে এ পেশায় তিনি কাজ করেন। তিনি আরোও জানান, এরকমের কানের ময়লা পরিস্কারকারি ডাক্তার বাংলাদেশে এক হাজারের মতো লোক এ পেশায় নিয়জিত আছেন। তবে তার মতো প্রশিক্ষন প্রাপ্ত কিনা তিনি তা জানেন না। তিনি সুধু কানের ময়লা পরিস্কার করেন তা নয় তিনি কানের ফানগাস এমনকি কানে বড় ধরনের কিছু ডুকলে তা তিনি দক্ষতার সাথে পরিস্কার করেন, তাছারও বড় ধরনের কানের জটিল কাজও করে থাকেন।

মাদারীপুরের শহরের লেকের পাড় ও বাস স্টাডে এরকমের কানের ময়লা পরিস্কাকারি ডাক্তার দুই, একজন দেখতে পাওয়া যাবে। সাধারন মানুষ এ কাজ করতে এধরনের ডাক্তারের কাজে আসেন, দিনে প্রতিদিন পাচঁ, ছয় জন করে কানের ময়লা পরিস্কার করতে মানুষ পাওয়া যায়, এসব কাজে ডাক্তার নামধারিদের আয় হয় জন প্রতি বিশ থেকে তিরিশ টাকা পর্যন্ত। প্রতিদিন তাদের দৈনিক আয় হয় ১০০ থেকে ১২০ টাকা পর্যন্ত।

এরও বেশী হয় কাজের ধরন বুঝে। এ রকমের একজন কানের ময়লা পরিস্কার করছেন তিনি বলেন, তিনি এর আগেও কানের ময়লা পরিস্কার করেছেন এধরের কাজে তার কোন সমস্য ও পার্শ্বপ্রতিকিরিয়ার সমুক্ষিন হন নি।
এখন প্রশ্ন হচ্ছে এ কাজের প্রদ্ধটিতা কতটা বিজ্ঞান সমুত্ব, এ কাজের কোন আদও বিজ্ঞানের কোন ব্যাখা আছে কিনা, সেটায় ভেবে দেখার বিষয় আছে।

এখন আবারও প্রশ্ন হচ্ছে এ ধরনের পেশায় যারা কাজ করেন তাদের এ কাজের উপরে কতটা বিজ্ঞানের মান সম্পন্ন হতে পারে। তাদের এ কাজের উপরে আদও কোন সার্টিফিকেট আছে কি না এবং এ কাজের কোন তাদের কোন বৈধতা আছে কি না। এ ব্যাপারে সাধারন মানুষদের আরোও সচেতন হতে হবে। কারন মানুষের কানের ময়লা এমনিতেই পরিস্কার হয়ে থাকে। এর জন্য কোন কারও কাছে যেতে হয় না।

তবে কানে সমস্যা থাকলে অবশ্য কানের ডিগ্রীধারী ডাক্তারের কাজে যাওয়া উচিত। সমস্যা হলেই এ ধরনের যারা কানের ময়লা পরিস্কারকারি ডাক্তার হিসেবে সমাজে অনেক চিনে থাকেন তাদের কাছে যাওয়া অবশ্য ঠিক হবে কি না। এটা অবশ্য আপনার নিজের উপরে নির্ভর করে থাকে।

এ ডিজিটাল যুগে এ ধরনে কাজ কি ভাবে চলছে এটাই ভেবে দেখার বিষয়। এখন অনেক মানুষ আছেন তারা তাদের এ ডিজিটাল যুগের সাথে নিজেদের অবস্থান তৈরি করতে পারছেন না এটাই মনে হতে পারে।

এখনেই তাদের এ যুগের সাথে মানিয়ে নিতে হবে। তা না হলে তারা নিজের অবস্থানের এ যুগের সাথে সাথে তা মিলাতে ব্যর্থ হবেন।