মেইন ম্যেনু

মানসিক অশান্তির জন্য দায়ী ফেসবুক!

পৃথিবীতে যত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আছে তার মধ্যে ফেসবুকের জনপ্রিয়তাই বেশি। এই সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতি মানুষের সম্পৃক্ততা বাড়লে বাড়িয়ে দিয়ে মানসিক অশান্তি।

ভার্চুয়ালে নির্ভরতা বাড়ার কারণে, নিকটজনদের সঙ্গে নেটওয়ার্কিং কমে যাচ্ছে। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথাবার্তাও এখন অনেকটাই হয়ে যাচ্ছে হোয়াটস-অ্যাপ কিংবা ফেসবুকে মেসেজ পাঠিয়ে। আপনার মন খারাপের স্ট্যাটাস আর পাঁচটা বন্ধুর মতো, আমরা একান্ত নিজের মানুষকে জানাচ্ছি ফেসবুকে। মুখ ফুটে আর বলাই হয় না।

পরিস্থিতি যদি এমন হয় তবে সাবধান। জার্নাল অফ সাইবারসাইকোলজির সমীক্ষা বলছে, অতিরিক্ত ফেসবুকে মেতে থাকলে তা জীবনে মারাত্মক প্রভাব ফেলতে পারে। দেখা গিয়েছে, যাঁরা অনেক সময় ধরে ফেসবুক নিয়ে মগ্ন থাকেন, তাঁদের সঙ্গীরা আস্তে আস্তে শারীরিক ও মানসিকভাবে দূরে চলে যান।

শুধু তাই নয়, অতিরিক্ত ফেসবুক ভেঙে দিচ্ছে প্রেম, সম্পর্ক। জন্ম দিচ্ছে অবিশ্বাস। এবং অনেক ক্ষেত্রেই যার পরিণতি দাঁড়াচ্ছে ফিজিক্যাল চিটিং, ব্রেকআপ এবং ডিভোর্স পর্যন্ত।



(পরের সংবাদ) »