মেইন ম্যেনু

মামলার সিদ্ধান্ত কঙ্গনার

সিনেমায় চরিত্র নিয়ে কোনো আপস নেই কঙ্গনার। নায়ক যেই হোক, ছবিতে নিজের চরিত্র পছন্দ হতেই হবে। বাস্তবেও কিন্তু এমন জেদি বৈশিষ্ট্য দেখা যায় এ সময়ের সফলতম বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনার। আর কেউ যদি তাঁর সঙ্গে উল্টোপাল্টা করে, তাহলে তাকে দেখে নিতে ছাড়েন না কঙ্গনা। মিস মালিনীর খবরে জানা গেল, একটি ই-কমার্স সাইটের বিরুদ্ধে মামলা করতে যাচ্ছেন তিনি। নিশ্চয় ই-কমার্স সাইটটি কোনো গণ্ডগোল করেছে!

অবশ্য তাঁর রাগের কারণ যৌক্তিকই বলা যায়। ই-কমার্স সাইটটি কঙ্গনার অনুমতি না নিয়েই তাঁর একটি ছবি ব্যবহার করেছে প্রচারণার জন্য। তাও আবার পণ্যটি ছিল ত্বক ফর্সাকারী ক্রিমের। ত্বক ফর্সাকারী ক্রিমের আইডিয়া মোটেও বরদাশত করতে পারেন না কঙ্গনা। তার ওপর তাঁকে না জানিয়ে তাঁর চেহারা প্রচার করেছে সাইটটি। সুতরাং মামলা করবেন বলেই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কঙ্গনা।

কিছুদিন আগেই এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, ত্বক ফর্সাকারী ক্রিমের ধারণাতেই তিনি বিশ্বাসী নন। কারণ রং নিয়ে ভেদাভেদ মোটেও পছন্দ করেন না তিনি। শুধু তাই নয়, মাসখানেক আগে একটি নামি ব্র্যান্ডের ত্বক ফর্সাকারী ক্রিমের বিজ্ঞাপনে কাজ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। এ জন্য অফারও করা হয়েছিল মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক। তবে সে প্রস্তাবে নিজের অবস্থান থেকে মোটেও সরে আসেননি তিনি। ফিরিয়ে দিয়েছিলেন লোভনীয় প্রস্তাব।

তবে এ নিয়ে ওই সাইটটির তরফ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। একই পণ্যের প্রচারণায় সাইটটি ব্যবহার করেছে আরো কয়েকজন অভিনেত্রীর চেহারা। এদের মধ্যে প্রিয়ঙ্কা চোপড়া ও সানি লিওনও রয়েছেন।