মেইন ম্যেনু

মারা গেলেন যশোরের রাজাকার লুৎফর মোড়ল

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত আসামি মোহাম্মদ লুৎফর মোড়ল (৭৫) চিকিৎসাধীন অবস্থায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

চিকিৎসক জানিয়েছেন, তার ডায়াবেটিস ছিল। আঘাতজনিত কারণে পায়ে ও কোমরের মাংসে পচন ধরেছিল। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ২১৭ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

লুৎফর মোড়লের পিতা মৃত জয়নাল মোড়ল। লুৎফরের হাজতি নম্বর ৩০২১১/২০১৫। ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইন্সপেক্টর মোজাম্মেল হক তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

লুৎফর মোড়লের গ্রামের বাড়ি যশোর জেলার কেশবপুরে। তিনি যশোর কারান্তরীণ ছিলেন। গত বছর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে যশোর কারাগার ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে তাকে প্রেরণ করে।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের কারারক্ষী জাকারিয়া জানিয়েছেন, অবস্থার অবনতি হলে গত ৪ এপ্রিল কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ঢামেকের ২১৭ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে ওয়ার্ডের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে যশোরের মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেনসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১-এ অভিযোগপত্র দাখিল করেছে প্রসিকিউশন।

গত ১৪ জুন তাদের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেন ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা। ১২ আসামির মধ্যে লুৎফর মোড়লও ছিলেন।