মেইন ম্যেনু

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে উ. কোরিয়ার হুমকি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার যৌথ সামরিক মহড়া বন্ধ না করলে দুই দেশের বিরুদ্ধে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের হুমকি দিয়েছে উত্তর কোরিয়া। উল্লেখ্য দ. কোরিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অসংখ্য সৈন্য প্রতি বছর সামরিক মহড়া করে যা এই অঞ্চলে অস্থিরতা সৃষ্টি করে।

উ. কোরিয়া মার্কিন-দ. কোরিয়ার সামরিক মহড়াকে আক্রমণের ‘রিহার্সেল’ দেখছে। ‘ফোল ইগল’ ও ‘কি রিজল্ভ’ নামের দ. কোরিয়া-মার্কিন সামরিক মহড়ায় ৩ লক্ষ দ. কোরীয় ও ১৫ হাজার মার্কিন সৈন্য অংশ নিচ্ছে। উ. কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কেসিএনএর প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, আগ্রাসনে আগ্রহীদের উপর নির্বিচার পারমাণবিক হামলা তাদের উ. কোরিয়ার সামরিক সামর্থ্য সম্পর্কে অবহিত করবে।

উল্লেখ্য, উ. কোরিয়ার এমন বক্তব্য নতুন কিছু নয়। গত বছর দেশটি বলেছিল তারা ওয়াশিংটনকে আগুনের সমুদ্রে পরিণত করবে। যদিও বিশেষজ্ঞরা ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহারে উত্তর কোরিয়ার সামর্থ্য নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। গত জানুয়ারিতে চতুর্থ পারমাণবিক বিস্ফোরণ ও কৃত্রিম উপগ্রহ নিক্ষেপ করার পরে দেশটির বিরুদ্ধে জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিল অর্থনৈতিক অবরোধ করে। জবাবে উত্তর কোরিয়া সাগরে কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্র ফেলে এবং দেশটির নেতা কিম জং উন দেশটির পারমাণবিক অস্ত্রগুলো যেকোনো সময় হামলা করার জন্য প্রস্তুত করার নির্দেশ দিয়েছেন। বিবিসি।