মেইন ম্যেনু

মালিকের গলায় ফাঁস, দাঁত দিয়ে দড়ি কেটে বাঁচাল কুকুর!

কয়েকদিন ধরেই মনিব যে খুব হতাশার মধ্যে রয়েছেন তা আঁচ করেছিল তার পোষ্য কুকুরটি। তাই তাকে সর্বদাই চোখে চোখে রাখছিল। হতাশার জীবন থেকে নিস্তার পেতে মনিব আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন গলায় দড়ি দিয়ে। কিন্তু তার পোষ্য কুকুরটি তা দেখে ফেলে। সঙ্গে সঙ্গে দাঁত দিয়ে দড়ি ছিঁড়ে মনিবকে বাঁচায় কুকুর। এক প্রতিবেদনে এ খবর দিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

কুকুরের প্রভুভক্তি নিয়ে নানা কাহিনী রয়েছে। কিন্তু ব্রিটেনের গ্লস্টাশায়ারের এ ঘটনা সব কুকুরের প্রভুভক্তির সব নজিরকে যেন ছাপিয়ে গেল। সঙ্গিনী ছেড়ে চলে যাওয়ায় কয়েকদিন ধরেই চরম হতাশায় জীবন কাটাচ্ছিলেন ব্রায়ন টেলর।

চাকরিও চলে গিয়েছিল। সব মিলিয়ে অবসাদে আত্মহত্যার পথই বেছে নেন ব্রায়ন। সিলিং ফ্যানে দড়ি টাঙিয়ে গলায় পরাতেই, কোথা থেকে তার জিও নামে পোষ্য কুকুরটি দৌড়ে এসে টেবিলের ওপর উঠে পড়ে। এরপর এক লাফে মনিবের ঘাড়ে উঠে গলায় পরানো দড়িটি দাঁত দিয়ে ছিঁড়ে মনিবকে বাঁচিয়ে দেয়।

এ ঘটনায় অবাক ব্রায়ন। তার কথায়, আমি খুবই খারাপ অবস্থায় ছিলাম। আমার সঙ্গিনী আমায় ছেড়ে চলে গেছে। চাকরি চলে গেল। বাড়িভাড়া দেয়ার টাকাও নেই। তাই জীবনটাকেই শেষ করতে গিয়েছিলাম। কিন্তু আমার কুকুরটা কিছুতেই মরতে দিল না।

বেদনার খবরটি হলো, কুকুরটির গলায় ক্যান্সার হয়েছে। চিকিত্‍‌সকরা জানিয়ে দিয়েছেন, আর হয়তো কয়েক সপ্তাহ পরই মারা যাবে সে।