মেইন ম্যেনু

‘মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের আর কোনো কর্মী আটক হবে না’

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নূরুল ইসলাম বিএসসি বলেছেন, মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের আর কোনো কর্মীকে আটক করা হবে না। মালয়েশিয়ায় সৃষ্ট সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ডিসেম্বর পর্যন্ত মালয়েশিয়ায় অবৈধ শ্রমিকদের বৈধ হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

রোববার দুপুরে রাজধানীর ইস্কাটনে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান ভবনের সম্মেলন কক্ষে রিপোর্টার্স ফর বাংলাদেশি মাইগ্রেশন (আরবিএম) আয়োজিত এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আরবিএমের সভাপতি ফিরোজ মান্নার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জাবেদ আহমদ ও বিএমইটির মহাপরিচালক সেলিম রেজা।

সেমিনার পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মাসুদুল হক। ‘লেবার মার্কেট সিচুয়েশন ইন মালয়েশিয়া অ্যান্ড মিডল-ইস্ট কান্ট্রিজ : প্রেজেন্ট অ্যান্ড ফিউচার চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সংগঠনের সদস্য মহসীন উল করিম।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ব্যক্তিগত সফরে মালয়েশিয়ায় অবস্থান করার কথা উল্লেখ করে বলেন, সেখানে বাংলাদেশ মিশনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে এ বিষয়ে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন। মিশনের পক্ষ থেকে মালয়েশিয়ার সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে সমস্যা সমাধান করা হচ্ছে।

গত দুই বছর দায়িত্ব পালনকালে জাপানসহ মধ্যপ্রাচ্যের বহু দেশে বাংলাদেশী কর্মী পাঠানো হচ্ছে এবং আরো নতুন নতুন শ্রম বাজারে দ্বার খোলা হবে বলে মন্ত্রী সেমিনারে জানান।

অতিরিক্ত সচিব জাবেদ আহমদ বলেন, মালয়েশিয়া সরকার সম্প্রতি বাংলাদেশের দুই লাখ ৫০ হাজার অবৈধ শ্রমিককে রিহায়ারিং কোটায় বৈধতা দিয়েছে। মালয়েশিয়া সরকার জি টু জির মাধ্যমে ২২ হাজার শ্রমিক নেওয়ার চাহিদাপত্র দিয়েছে। এর মধ্যে প্রায় আট হাজার শ্রমিক মালয়েশিয়ায় গেছেন। জি টু জির মাধ্যমে বনায়ন ও কৃষি কাজের জন্য যারা বৈধভাবে যান তাদের কাছ থেকে সরকারিভাবে মাত্র ৩৫ হাজার টাকা নেওয়া হয়ে থাকে বলে তিনি জানান।

সেলিম রেজা বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের অনেক দেশে নারী কর্মীদের বিদেশ যেতে এখন কোনো টাকা দিতে হয় না। ভবিষ্যতে পুরুষ কর্মীদেরও বিদেশে যেতে টাকা দিতে হবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।






মন্তব্য চালু নেই