মেইন ম্যেনু

মাশরাফি-সাকিবদের অনেক প্রাপ্তির সিরিজ

আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশী সিরিজে কোনো ফাইনাল নেই। কোনো দল রানার্সআপও হবে না। স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড, বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ড তিন দলের মধ্যে যারা বেশি পয়েন্ট অর্জন করবে তারাই হবে চ্যাম্পিয়ন। তিনটি দল পরস্পরের সঙ্গে দুবার করে খেলবে।

তবে বাংলাদেশের জন্য এই সিরিজ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দেখা দিয়েছে। কারণ র‌্যাংকিং। এখানে বড় প্রাপ্তি মাশরাফি বিন মুর্তজার দল অর্জন করতে পারে। সেটা হলো ২০১৯ বিশ্বকাপের সরাসরি টিকিট। কিছুদিন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচের সিরিজ খেলেছে আয়ারল্যান্ড। দুটি ম্যাচই তারা হেরেছে। আর নিউজিল্যান্ডের যে দলটি খেলবে সেই দলের অনেক খেলোয়াড়ই আইপিএল খেলছে। তাই বাংলাদেশের সামনে দারুন এক সুযোগই অপেক্ষা করছে। যার শুরুটা হচ্ছে শুক্রবার (১২ মে) ডাবলিনের মালাহাইডে।যেখানে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ আয়ারল্যান্ড।ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল পৌনে চারটায়।

এমন সুযোগ মাশরাফিও হেলায় নষ্ট করতে চাইছেন না। তাছাড়া সামনেই রয়েছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। একে তো র‌্যাংকিং, দুইয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। সবমিলে ভালো ফলাফলের জন্য মুখিয়ে বাংলাদেশ। মাশরাফি বলছেন, ‘অবশ্যই এটা আমাদের খুব গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ। গত দুই-আড়াই বছরে আমরা খুবই ভালো খেলেছি। সর্বশেষ শ্রীলঙ্কা সফরেও ভালো করেছি। ওখানে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে জিতেছি। এখানেও ভালো করলে সেটা চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে সহায়তা করবে।’

ঘরের মাঠে সব দলই ভয়ঙ্কর। তাই আয়ারল্যান্ডকে হালকাভাবে নেয়ার কোনো উপায় নেই। ২০১০ সালে সর্বশেষ আয়ারল্যান্ড সফরে বেলফাস্টে আইরিশদের কাছে ৭ উইকেটে হেরেছিল বাংলাদেশ।

মাশরাফি তাই আয়ারল্যান্ডকে সমীহের চোখেই দেখছেন, ‘অবশ্যই অনেক বড় চ্যালেঞ্জ আমাদের জন্য। নিজেদের মাঠে সব সময়ই ফুরফুর মনে খেলা যায়। বিদেশের মাটিতে খেলা যেকোনো দলের জন্যই চ্যালেঞ্জিং। আয়ারল্যান্ড ভালো খেলছে। তারা জানে নিজেদের কন্ডিশনে কীভাবে খেলতে হয়। তবে ম্যাচ জিততে আমাদের ভালো খেলতে হবে, সেরাটাই দিতে হবে।’

ত্রিদেশী সিরিজ ও চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য বাংলাদেশ দল আগেভাগে পাড়ি জমিয়েছে ইউরোপে। সাসেক্সে কন্ডিশনিং ক্যাম্পে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচের একটি বৃষ্টিতে ভেসে গেছে। অপরটি বাংলাদেশই জিতেছে। আয়ারল্যান্ডের প্রস্তুতি ম্যাচটিও জিতেছে বাংলাদেশ। প্রস্তুতি ম্যাচের পারফরম্যান্স মাশরাফিকে দারুন আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে, ‘ইংল্যান্ডে এসেছি ১৫ দিন আগে। প্রস্তুতি ভালোই নিয়েছি। গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়েরা সবাই ফিট আছে। যতটা পেরেছে আবহাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে নিয়েছে। ইংল্যান্ডে যখন এসেছিলাম ঠান্ডা ছিল বেশি। এখন আবার আবহাওয়াটা একটু ভালো। আবহাওয়া এমন থাকলে আমাদের জন্য ভালোই হবে। আমাদের ১৮ খেলোয়াড় ভালোভাবে প্রস্তুতি নিয়েছে। আশা করি ভালো কিছুই হবে।’

সর্বশেষ শ্রীলঙ্কা সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে স্লো-ওভার রেটের কারণে মাশরাফি এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছিলেন। সে কারণে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি তিনি খেলতে পারছেন না। তার জায়গায় দলকে নেতৃত্ব দেবেন সাকিব আল হাসান।

বাংলাদেশ দল (সম্ভাব্য): তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), মোসাদ্দেক হোসেন, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদুল্লাহ, মেহেদি হাসান মিরাজ, শফিউল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান।

আয়ারল্যান্ড দল (সম্ভাব্য): এড জয়েস, পল স্টিয়ারলিং, উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড (অধিনায়ক), অ্যান্ড্রু বালবিরনি, নিয়াল ও’ব্রায়েন, গ্যারি উইলসন, কেভিন ও’ব্রায়েন, জর্জ ডকরেল, ব্যারি ম্যাকার্থি, টিম মুরতাহ, পিটার চেজ।






মন্তব্য চালু নেই