মেইন ম্যেনু

মাহমুদুর রহমানকে দেখতে ডিবিতে বৃদ্ধা মা, মেলেনি অনুমতি

দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে দেখতে অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগে (ডিবি) যান বৃদ্ধা মা অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপিকা মাহমুদা বেগম। এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন তার আইনজীবীরাও। কিন্তু সাক্ষাতের অনুমতি দেয়নি পুলিশ।

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর মিন্টোরোডে ডিবি অফিসে রিমান্ডে থাকা মাহমুদুর রহমানের সাথে দেখা করতে যান তারা। পরে সেখানে তাৎক্ষণিকভাবে উপস্থিত সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে মাহমুদুর রহমানের শারীরিক অবস্থা নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন মা মাহমুদা বেগম।

তিনি বলেন, ‘সজীব ওয়াজেদ জয়ের স্ট্যাটাস, যার ওপর ভিত্তি করে ঢাকায় মামলা হয়েছে সেখানে কিংবা আমেরিকার আদালতে দায়ের করা অভিযোগ বা অন্যকোনো ভাবেও কোথায় মাহমুদুর রহমানের নাম আসেনি। এই ঘটনার সাথে তার দূরতম কোনো সম্পর্ক নেই। তারপরও অন্যায়ভাবে তাকে এ মামলায় জড়ানো হয়েছে। রিমান্ডে আনা হয়েছে। আমার ছেলের শারীরিক অবস্থা নিয়ে আমি ভীষণভাবে উদ্বিগ্ন।’

তিনি জানান, সম্প্রতি মাহমুদুর রহমানের ওজন ১০ কেজি কমে গেছে। এ অবস্থায় তাকে রিমান্ডে নিয়ে আসা হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে কাশিমপুর কারাগার থেকে মাহমুদুর রহমানকে বুঝে নেয় ডিবি। বেলা ২টার দিকে ডিবির একটি দল তাকে নিয়ে মিন্টো রোডে ডিবি অফিসে ঢুকে।

খবর পেয়েই বিকেল ৫টার দিকে মাহমুদুর রহমানের মা ও তার আইনজীবীরা সাক্ষাতের চেষ্টা চালান। কিন্তু তাদেরকে ডিবি অফিসের গেটেই আটকে দেয়া হয়।

এ সময় মাহমুদুর রহমানের খালা মনিরা মাহমুদ, আইনজীবী মাসুদ আহমদ তালুকদার, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমদ, বিএফইউজের মহাসচিব এম আবদুল্লাহ, ইঞ্জিনিয়ার রিয়াজুল ইসলাম রিজু, অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন মেজবাহ, অ্যাডভোকেট সুলতান মাহমুদ, ডিইউজের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধানসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।