মেইন ম্যেনু

মিঠাপুুকুরের শঠিবাড়ী দুর্গাপুর মহাশ্মশানের শিলান্যাস অনুষ্ঠিত

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার শঠিবাড়ীতে ৬০ বছর পর দখলমুক্ত হয়েছে মহাশ্মশানের সাড়ে ৩ একর সম্পত্তি। বৃহস্পতিবার সেখানে শশ্মান ঘাটের শিলান্যাস করা হয়েছে। শঠিবাড়ী দক্ষিণ বাসস্ট্যান্ডের কাছে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের পাশে শঠিবাড়ী দুর্গাপুর কেন্দ্রীয় মহাশশ্মান ঘাটের শিলান্যাস করেন হিন্দু ধর্মীয় গুরু আচার্য্য জপানন্দ অবধূত।

স্থানীয় কতিপয় ব্যক্তি মহাশ্মশানের সম্পত্তি দখলে নিয়ে অবৈধ স্থাপনা গড়ে তোলেন। শ্মশানের সম্পত্তি উদ্ধারের জন্য শ্মশান কমিটির সম্পাদক কমলা কান্ত আদালতে মামলা দায়ের করেন। নিন্ম আদালত থেকে পরবর্তীতে মামলাটি সর্বোচ্চ আদালতে (সুপ্রীম কোর্ট) গড়ায়। এক পর্যায়ে সুপ্রীম কোর্টের আপীল ডিভিশন শ্মশানের পক্ষে রায় দেন।

এরপর গত ১৫ সেপ্টেম্বর প্রশাসন অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে শ্মশান কমিটির কাছে সম্পত্তি হস্তান্তর করে দেয়। বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠানিক ভাবে শিলান্যাস করা হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি সহকারী অধ্যাপক ঋষিকেশ সরকার, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি নিরঞ্জন মহন্ত, অধ্যাপক সুব্রত কুমার ঘোষ, প্রাণ গোবিন্দ মজুমদার, সাংবাদিক প্রদীপ কুমার গোস্বামী, প্রধান শিক্ষক হরেন্দ্র নাথ সাহা, নৃপেন্দ্র নাথ সরকার, শ্মশান কমিটির মুখপাত্র কমলা কান্ত, হরেন্দ্র নাথ ক্ষুদু, প্রফুল্ল প্রমুখ।