মেইন ম্যেনু

মিঠাপুুকুরে প্রশাসনের উদোগে বন্ধ হলো ২টি বাল্যবিয়ে

মোঃ শামীম আখতার, উপজেলা প্রতিনিধি, মিঠাপুকুর (রংপুর)॥ রংপুরের মিঠাপুকুরে উপজেলা প্রশাসন ও একটি মানবাধিকার সংস্থার উদ্যোগে ২ শিক্ষার্থীর বাল্যবিয়ে বন্ধ হয়েছে। একজন শঠিবাড়ী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী ও অপরজন শঠিবাড়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম ছাত্রী।

মানবাধীকার কর্মীদের দেওয়া তথ্য মতে জানা যায়, চিথলী রামপুরা গ্রামের মজনু মিয়ার মেয়ে মৌলুদা আক্তার শঠিবাড়ী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী। তার বিয়ে ঠিক করা হয়েছিল পীরগঞ্জ উপজেলা বড়দরগাহ এলাকায়। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে উপজেলা প্রশাসন ও ইউনিটি ফর ইউনিভার্স হিউম্যান রাইটস্ অফ বাংলাদেশ ফাইন্ডেশনের লোকজনকে জানানো হয়। তাঁরা ওই ছাত্রীর বাড়িতে যান ও স্থানীয় সুধীবৃন্দের সহায়তায় বৃহস্পতিবার বিয়েটি বন্ধ করে দেন।

অপরদিকে, শীতলগাড়ী গ্রামের মহির উদ্দিনের মেয়ে মাহফুজা খাতুন শঠিবাড়ী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে নবম শ্রেণীর ছাত্রী। তার বিয়ে ঠিক করা হয়েছিল বালারহাট কঞ্চিবাড়ী এলাকায়। সেখানেও উপজেলা প্রশাসন ও ওই মানবাধীকার সংস্থার লোকজন গিয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেন। ইউনিটি ফর ইউনিভার্স হিউম্যান রাইটস্ অফ বাংলাদেশ ফাইন্ডেশনের মিঠাপুকুর উপজেলা কার্যালয়ের চেয়ারম্যান আজাহারুল ইসলাম চৌধুরী নওশাদ বলেন, আমরা উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায় বাল্যবিয়ে ২টি বন্ধ করে দেই।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সালাহ্উদ্দিন বলেন, মানবাধিকার সংস্থার লোকজন বিষয়টি আমাকে জানায়। উপজেলা প্রশাসন ও ওই মানবাধিকার সংস্থার কর্মীদের মিলে বাল্যবিয়ে দুটি বন্ধ করে দেওয়া হয়।