মেইন ম্যেনু

‘মিনায় পদদলনের ঘটনায় দায়ী সৌদি যুবরাজ’

সৌদি আরবের মিনায় শয়তানকে লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করতে গিয়ে পদদলিত হয়ে যে সাত শতাধিক হাজি মারা গেছেন তার জন্য সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমান আল সৌদকে দায়ী করা হচ্ছে।

লাখ লাখ হাজি যখন পাথর নিক্ষেপ করছিলেন তখন যুবরাজের সঙ্গে বিরাট এক বহর ওই স্থানে ঢুকে পড়ায় পদদলিতের ঘটনা ঘটে বলে ইরানি গণমাধ্যমে দাবি করা হয়েছে। আরবি ভাষার ডেইলি সংবাদপত্র আল-দিয়ার’র বরাত দিয়ে প্রেস টিভি এ কথা জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, সৌদি যুবরাজ যখন বিশাল বহর নিয়ে মিনার মূল স্থানে প্রবেশ করছিলেন তখন শুধু তার নিরাপত্তার জন্য ২০০ সেনা সদস্য এবং ১৫০ পুলিশ সদস্য সেখানে ছিল। লাখ লাখ হাজির মাঝে এত বড় একটি বহর ঢুকে পড়ায় নিরাপত্তা বাহিনী জায়গা তৈরির চেষ্টা করায় পদদলিতের ঘটনা ঘটে।

অন্যদিকে, লেবাননের একটি সংবাদপত্রের বরাত দিয়ে প্রেস টিভির খবরে বলা হয়েছে, পদদলিতের ঘটনা ঘটলে যুবরাজের বহর দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। সেইসঙ্গে সৌদি কর্তৃপক্ষ বিষয়টি ধামাচাপা দেয় এবং ঘটনাটি যাতে গণমাধ্যমে না যেতে পারে তার জন্য যথাযথ পদক্ষেপ নেয়।

Pilgrimes 2

তবে সৌদি কর্তৃপক্ষ এসব খবর প্রত্যাখ্যান করেছে। এটি ভুল সংবাদ বলে মন্তব্য করেছে তারা। সৌদি স্বাস্থ্যমন্ত্রী খালেদ আল ফালিহ উল্টো হাজিদের ওপর এ ঘটসার দায় চাপিয়ে বলেছেন, হাজিরা ঠিকভাবে দিকনির্দেশনা না মানায় পদদলিতের ঘটনা ঘটেছে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবারের ওই ঘটনায় এ পর্যন্ত ৭১৭ জন হাজী মারা গেছেন বলে জানিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে, ইরানের হজ বিষয়ক সংস্থার পক্ষ থেকে ১৩০০ হাজির মারা যাওয়ার দাবি করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৩১ জন ইরানের।