মেইন ম্যেনু

মিয়ানমারের ভূমিতে ভারতের হামলা

বিদ্রোহীদের ঘাঁটি লক্ষ্য করে ভারত-মিয়ানমার সীমান্তে গত মঙ্গলবার যৌথ হামলা চালিয়েছে ভারতীয় সেনা ও বিমানবাহিনী। এ সময় মিয়ানমারের ভূমিতে অবস্থিত দুটি ঘাঁটিতেও হামলা চালানো হয়। খবর হিন্দুস্তান টাইমস ও এনডিটিভির।

২১ প্যারা (স্পেশাল ফোর্স) রেজিমেন্টের ৪০ কমান্ডার এ অভিযানে অংশ নেন। অভিযানে ভারতীয় বিমানবাহিনীর ব্যবহৃত রাশিয়ায় তৈরি এমআই-৩৫ হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হয়।

প্রায় ৩০ মিনিটের ওই অতর্কিত অভিযানে মিয়ানমারের ৪ কিলোমিটার ভেতরে অবস্থিত বিদ্রোহীদের দুটি ঘাঁটিতে হামলা চালানো হয়। হেলিকপ্টার দিয়ে চালানো ওই হামলায় ২০ জনেরও বেশি বিদ্রোহী নিহত হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

সেনা সূত্রের বরাতে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সামরিক বাহিনীর চালানো এ অভিযানে ৫০ বা এরও বেশি বিদ্রোহী নিহত হয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে, গত ৪ জুন ভারতের মনিপুরে সামরিক বাহিনীর সদস্যদের ওপর বিদ্রোহীদের চালানো অতর্কিত হামলার জবাবেই এ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। ওই হামলায় ১৮ সেনা সদস্য নিহত হয়েছিলেন।

তবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, প্রতিশোধের স্পৃহা থেকে এ হামলা চালানো হয়নি। গত কয়েক দিনে পাওয়া গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এ হামলা চালানো হয়েছে। বিদ্রোহীরা শিগগিরই আমাদের অঞ্চলে আরও হামলা চালানোর পরিকল্পনা করেছিল।

মিয়ানমার সীমান্তে হামলার ব্যাপারে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মিয়ানমার সরকারের সঙ্গে আলোচনা করেই এ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এটা সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে একসঙ্গে কাজ করার অংশ।

এদিকে টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্ভবত অপর দেশের সীমান্তে এই প্রথম এ ধরনের হামলা চালালো ভারত। এটা পাকিস্তানের জন্য হুঁশিয়ারি বলেও উল্লেখ করেছে ভারতীয় পত্রিকাটি।