মেইন ম্যেনু

‘মুক্তি পেলে আমার জন্য প্রতিটি দিনই হবে ঈদের দিন’

আগামী ৬ সেপ্টেম্বর ব্রিসবেনে বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষা দিতে অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন তাসকিন আহেমদ। এর দু’দিন পরই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ন্যাশনাল ক্রিকেট সেন্টারে বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা দেবেন তিনি। ঈদ-উল-আযহার আগে পরীক্ষার ফল প্রকাশ হওয়ার সম্ভাবনা নেই। সুতরাং, ঈদের সময় কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে থাকবেন এ পেসার। ফলে ঈদে হয়তো সেভাবে আনন্দ করা নাও হতে পারে তার। তবে বোলিংয়ের নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পেলে ঈদের চেয়েও বেশি আনন্দ পাবেন তাসকিন। প্রতিটি দিনকেই ঈদের মত উদযাপন করবেন বলে জানালেন এ গতি তারকা।

স্কিল অনুশীলনের দ্বিতীয় দিনে রোববার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুশীলন করতে আসেন তাসকিন। অনুশীলনের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘নিষিদ্ধ শব্দটি আসার পর প্রত্যেকটি দিনই আমার কাছে ছিল একটু অন্যরকম, বেদনাদায়ক। নিষিদ্ধ শব্দটি উঠে গেলে প্রত্যেকটি দিনই মনে হবে যেন ঈদের দিন।’

তবে নিষেধাজ্ঞা থেকে ফিরতে দারুণ দৃঢ় প্রতিজ্ঞ তাসকিন। চেন্নাইয়ে শুধু মাত্র স্লো বাউন্সারে কিছুটা ত্রুটি ছিল তার, তাও খুবই সামান্য। তাই এ পরীক্ষায় ভালোভাবেই উতরে যাবেন বলে বিশ্বাস রয়েছে তার। তবে সহজ পরীক্ষা ভেবে একে হালকাভাবে নিতে নারাজ তাসকিন। একটি বলেও যদি সমস্যা হয়, তাহলে নিষিদ্ধ হবেন এক বছরের জন্য, একথা ভালো করেই জানেন এ পেসার।

‘পরীক্ষা তো, ভালোভাবে ও সহজভাবে পরীক্ষা দিয়ে আসতে পারি সেভাবেই প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। আমাদের দেশের বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে যে মতামত পেয়েছি, তারা সন্তুষ্ট। এমনকি আমি নিজেও সন্তুষ্ট। তবুও আসলে পরীক্ষা…। দু’একটা বলেও যদি প্রবলেম আসে তাও সমস্যা হবে। এজন্য ভালোভাবে প্রস্তুতি নেওয়ার চেষ্টা করছি। কঠোর অনুশীলন করছি। বাকি সব আল্লাহর ইচ্ছা।’