মেইন ম্যেনু

মুখরোচক মশলাদার নিরামিষ আলু-মটর (রেসিপি ও ভিডিও)

এই গরমে আমিষ জাতীয় খাবার একটু কমই খেয়ে থাকি আমরা। বরং নিরামিষ খাবারই বেশি খাওয়া দরকার। কিন্তু নিরামিষ খাবার যেন ঠিক আমিষের মতো মজা হয় না। আর নিরামিষের তেমন মুখরোচক রেসিপিও জানেন না অনেকেই। চলুন আজ দেখে নেই মশলাদার মুখরোচক দারুণ এক নিরামিষ রান্নার রেসিপি। মাখা মাখা এই রান্নাটি খেয়ে আপনি ভুলেই যাবেন আমিষের স্বাদ!

উপকরণ
– ৩টা মাঝারি আলু, চামড়া ছাড়িয়ে ১ ইঞ্চি কিউব করে কাটা
– আধা কাপ মটরশুঁটি
– ৩ টেবিল চামচ তেল
– ১টা মাঝারি পিঁয়াজ কুচি করা
– লবণ স্বাদমতো
– ২/৩টা কাঁচামরিচ
– ১ টেবিল চামচ ধনেপাতা কুচি
– ২ কোয়া রসুন
– সামান্য আদা কুচি
– ৩টা টমেটো কিউব করা
মশলার জন্য
– ১ টেবিল চামচ ধনে গুঁড়ো
– ১ টেবিল চামচ কাশ্মিরি মরিচ গুঁড়ো
– সিকি চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
– আধা চা চামচ গরম মশলা গুঁড়ো
– আধা চা চামচ আস্ত জিরা

প্রণালী

১) একটা ওভেন-প্রুফ বোলে এক চিমটি লবণ এবং এক টেবিল চামচ পানি দিন মটরশুটির সাথে। এটাকে ঢেকে মাইক্রোওয়েভে গরম করে নিন ২ মিনিট। এতে মটরশুটির মিষ্টি ভাবটা চলে যাবে। এরপর বের করে রাখুন।

২) একটা প্রেশার কুকারে তেল মাঝারি আঁচে গরম করে নিন। এতে দিন জিরা, লম্বালম্বি চেরা কাঁচামরিচ এবং পিঁয়াজ। জিরা ফুটতে থাকলে এতে দিন ধনে গুঁড়ো, গরম মশলা গুঁড়ো, মরিচ গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো এবং মিশিয়ে সাঁতলে নিন ২ মিনিট।

৩) পিঁয়াজ নরম হতে দিন। এই সময়ের মাঝে কিউব করা টমেটো, আদা ও রসুন ব্লেন্ড করে পিউরি করে নিন। এই পিউরি প্রেশার কুকারে দিয়ে মিশিয়ে নিন মশলার সাথে।

৪) ২ মিনিট ভালো করে রান্না করে নিন এই টমেটোর পেস্ট। এরপর দিয়ে দিন আলু, সেদ্ধ মটরশুঁটি, পৌনে এক কাপ পানি এবং লবণ।

৩) ভালো করে মিশিয়ে নিন। ঢাকনা চাপা দিয়ে রান্না হতে দিন তিনটা শিষ দেওয়া পর্যন্ত। এরপর চুলা বন্ধ করে দিন। প্রেশার কুকার বন্ধ করে রাখুন, খুলবেন না। মিনিট পাঁচেক রেখে দিন, এর মাঝে কক্ষ তাপমাত্রায় ঠাণ্ডা হয়ে আসবে প্রেশার কুকার। এরপর ঢাকনা খুলে একবার নেড়ে মিশিয়ে নিন। এতে ধনেপাতা মিশিয়ে নিন এবং পরিবেশন করুন গরম গরম। যে কোনো রুটি বা পরোটার সাথে এই মাখা মাখা সবজি দারুণ লাগবে।

ভালো করে বুঝতে দেখে নিন রেসিপির ভিডিওটি।