মেইন ম্যেনু

মুগ্ধ হয়ে সৌদির কারাগারে ইসলাম গ্রহণের পর হজ পালন করেছেন ভারতের এক হিন্দু

সৌদিতে ঘুষ লেনদেনের অপরাধে তিন মাস আগে গ্রেফতার এক ভারতীয় হিন্দু বন্দি কারাগারে ইসলাম গ্রহণের পর হজ পালন করেছেন। শুক্রবার সৌদি গেজেটের এক প্রতিবেদনে ওই নও মুসলিমের হজ পালনের কথা তুলে ধরা হয়েছে।

মুসলমানদের আচার আচরণে মুগ্ধ হয়ে সৌদির কারাগারে ইসলাম গ্রহণের পর হজ পালন করেছেন ভারতের এক হিন্দু। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই ব্যক্তি বলেন, আমার ধারণা ছিল মুসলমানরা যে কোনো অমুসলমানকে নির্যাতন করে থাকে। কিন্তু কারাগারে হিন্দু পরিচয় জানা সত্ত্বেও আমার সঙ্গে সদয় আচরণ করা হয়েছে এবং সম্মান প্রদর্শন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, কারাগার কেউ হিন্দু ধর্মকে অসম্মান করেনি। সেখানে আমি মুসলিম আলেমদের তালিমে অংশ নেই এবং এক সময় নিজেকে ইসলামের মধ্যে খুঁজে পাই। আমি বিমোহিত হয়ে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত শুনি।

ওই বন্দি বলেন, কোরআন যেন মানুষের মন এবং রূহের সঙ্গে কথা বলে এবং সৎ কাজ ও নৈতিকতার প্রতি আহ্বান করে।

নওমুসলিম আরও বলেন, আমি বিশ্বাস করি ইসলামই হচ্ছে মানুষের প্রাকৃতিক ধর্ম। সৌদি বাদশার উপদেষ্টা এবং মক্কার আমির প্রিন্স খালেদ আল খালেদ কেন্দ্রীয় হজ কমিটির চেয়ারম্যান।

এবার ভারতীয় কারাবন্দিদের হজ করার অনুমতি দিয়ে এক আদেশ জারি করেন তিনি। এরপর অন্য বন্দিদের সঙ্গে ওই নওমুসলিমও হজ করার সুযোগ পান।

এদিকে মক্কা কারাগারের পরিচালক মেজর জেনারেল আবদুল্লাহ আল মাকতি জানিয়েছেন, ওই নওমুসলিম স্বেচ্ছায় ইসলাম গ্রহণ করেছেন।

তিনি বলেন, আমরা কারাগারে একদল আলেমের মাধ্যমে অমুসলিম বন্দিদের কাছে ইসলাম ও পবিত্র কোরআনের প্রকৃত বাণী তুলে ধরি। এর ফলে বন্দিরা স্বাধীনভাবে ইসলাম গ্রহণ করা না করার সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। তাদের কাউকেই আমরা মুসলিম হতে বাধ্য করি না।

তিনি আরও জানান, এবার যেসব কারাবন্দি ইসলাম গ্রহণ করেছেন, তাদের সম্বর্ধনা জানাতে কারা কর্মকর্তা এবং বন্দিরা একটি ছোট্ট পার্টির আয়োজন করেছিল। সেখানে উপহার সামগ্রী এবং ইসলামী বই দিয়ে বরণ করা হয়েছে নওমুসলিম ভাইদের।-যুগান্তর