মেইন ম্যেনু

মুনতাসীর মামুন ‘বুদ্ধি জালিয়াতকারী’, উকিল নোটিশ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ইতিহাসের অধ্যাপক মুনতাসীর মামুনকে ‘বুদ্ধিবৃত্তিক জালিয়াতিকারী’ উল্লেখ করে একটি উকিল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও দৈনিক জনকণ্ঠ পত্রিকার সম্পাদক মোহাম্মদ আতিকউল্লাহ খান মাসুদ ও নির্বাহী সম্পাদক স্বদেশ রায়কেও এ নোটিশটি পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) গোবিন্দ চন্দ্র প্রামাণিকের পক্ষে এ নোটিস পাঠান সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আফসানা বেগম। তাদের বিরুদ্ধে ১২ কোটি টাকার মানহানির অভিযোগ এনে নোটিসটি পাঠিয়েছেন জাতীয় হিন্দু মহোজোটের মহাসচিব অ্যাডভোকেট গোবিন্দ চন্দ্র প্রামাণিক।

আগামী সাতদিনের মধ্যে এ টাকা পরিশোধ না করলে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে। নোটিসে বলা হয়, ‘২০ জুন দৈনিক জনকণ্ঠে ‘‘সংখ্যালঘুদের উদ্বেগ ও একরৈখিক চিন্তাভাবনা’’ শীর্ষক কলামে গোবিন্দ প্রামানিককে জামায়াতের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক উল্লেখ করা হয়। যা মিথ্যা, বিভ্রান্তি ও ফরমায়েসি প্রতিবেদন।’

নোটিসে আরও বলা হয়, ‘মুনতাসীর মামুনকে বুদ্ধিবৃত্তিক জালিয়াতিকারী ও জনকণ্ঠ’র সম্পাদক ও নির্বাহী সম্পাদককে জালিয়াতির সহযোগী উল্লেখ করে বলা হয়, তারা ইচ্ছাকৃতভাবে গোবিন্দ্র চন্দ্র প্রামাণিককে ক্ষতির সন্মুখীন করেছেন। প্রকৃতপক্ষে গোবিন্দ প্রমানিক জামায়াতের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন না।’

‘এতে সামাজিক, মানুষিক ও সাংগঠনিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় নোটিশ পাওয়ার পর থেকে ৭ দিনের মধ্যে তিন বিবাদীকে ৪ কোটি টাকা হারে মোট ১২ কোটি টাকা গোবিন্দ্র চন্দ্রকে পরিশোধ করতে বলা হয়েছে। অন্যথায় ৩ বিবাদীর বিরুদ্ধে দেওয়ানি ও ফৌজদারি আইনের আশ্রয় গ্রহণ করা হবে’, বলে নোটিসে উল্লেখ করা হয়।