মেইন ম্যেনু

মুসলিম তরুণীর সেলফি পাল্টে দিল ইসলাম বিদ্বেষীদের

বেজলিয়ামে একটি মুসলিম বিরোধী বিক্ষোভ উল্টো ফল দিয়েছে যখন ওই বিক্ষোভের সামনে দাঁড়িয়ে এক উদারচেতা ও সাহসী মুসলিম তরুণী সেলফি তুলে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেছেন।

উগ্র মুসলিম বিদ্বেষী সংগঠনের লোকদের সামনে দাঁড়িয়ে জাকিয়া বেলখিরির তোলা ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এবং হাজার হাজার লাইক ও শেয়ার হয়েছে।

‘প্রকাশ্যে মুসলিম বিরোধী’ হিসেবে নিজেদের পরিচয় দেয়া ভ্লামস বেলাং দলের সদস্যরা জড়ো হয়েছিলেন একটি ইসলামি লাইফস্টাইল সংক্রান্ত অনুষ্ঠানের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে।

বিক্ষোভের অন্যতম আয়োজক ফিলিপ ডেউইন্টার দাবি করেন ‘এই ইসলামি মেলাটি হলো বর্ণবাদী মেলা এবং তারা একত্রিতকরণের পরিবর্তে বিচ্ছিন্নতাবোধ শিক্ষা দেয়।’ কিন্তু জাকিয়া বেলখিরি এ সময় অভিনব কাণ্ড করে বসেন।

হিজাব পরিহিত ২২ বছর বয়সী এই তরুণী মেলা থেকে বেরিয়ে দেখেন বিক্ষোভ চলছে। তিনি ‘হিজাব চলবে না, মসজিদ বন্ধ কর এবং ইসলাম নিষিদ্ধ কর’ লেখা ব্যানারের সামনে গিয়ে নিজের ছবি তোলেন।

বিবিসি ট্রেন্ডিংকে তিনি বলেন, ছবি তুলে তিনি ‘দেখাতে চেয়েছেন যে বিষয়টা অন্যরকমও হতে পারে। আমরা পাশাপাশি না থেকে একত্রেই বাস করতে পারি।’

তিনি বলেন, সেলফি তুলে তিনি প্রতিবাদ করতে চাননি বরং আনন্দ ও শান্তি ভাগাভাগি করতে চেয়েছেন। শনিবার বেলজিয়ামের অ্যান্টওয়ার্পে তৃতীয় বার্ষিক মেলায় এ ঘটনা ঘটে।

বেলজিয়ামের মুসলিম সম্প্রদায়ের গুরুত্বপূর্ণ মেলা এটি। এখানে আলোচনা, ওয়ার্কশপ, হালাল খাবারের মার্কেট, ইসলামী সংগীতসহ নানা বিষয় স্থান পায়।

বেলজিয়ামের মোট জনসংখ্যার ১৫ ভাগ মুসলিম। গত মার্চে ব্রাসেলসে সন্ত্রাসী হামলার পর ভ্লামস বেলাংয়ের মত উগ্র সংগঠনের প্রতি কিছু লোকের সমর্থন বাড়ছে।

জাকিয়া বলেন, এ ঘটনার পর তিনি গণমাধ্যমকে এড়িয়ে চলতে চেয়েছিলেন। কারণ তিনি চাননি যে মানুষ মনে করুক যে তিনি একজন প্রচারকামী।