মেইন ম্যেনু

মৃত্যুর ১৫ ঘণ্টা পর ফিরে আসল নবজাতক!

রঙ্গমঞ্চের এই পৃথিবীতে আশ্চর্যের শেষ নেই। সৃষ্টিকর্তা বিভিন্ন সময় আকস্মিক ঘটনার সৃষ্টি করে। এবার ছোট্ট এক শিশুর আকস্মিক জীবন ফিরে পাওয়ায় আরেকটি অলৌকিক ঘটনার সৃষ্টি হল।

চায়নায় জেজিয়াং প্রদেশের একটি হাসপাতালে গত বৃহস্পতিবার একটি এক মাস বয়সী শিশুকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। তারপর তাকে ১৫ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে হাড় কাঁপানো ঠাণ্ডায় ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় মর্গে রাখা হয়।

পরবর্তী দিন জেজিয়াংয়ের পানান জেলায় শিশুটির শেষকৃত্য করতে গেলে শিশুটি জেগে উঠে। শিশুটি তখন কেঁদে উঠে ও তার শ্বাস-প্রক্রিয়া স্বাভাবিকভাবে চলতে থাকে। তারপর শিশুটিকে জলদি একটি নিকটস্থ হাসপাতালে নেয়া হয়।

এই শিশুটির ছবি ও ডেথ সার্টিফিকেট এর ছবি ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে উঠেছে।

এই শিশুটি সময়ের পূর্বে জন্মগ্রহণ করেছিল। যার দরুণ তাকে ২৩ দিন পর্যন্ত ইনকিউবারে রাখা হয়েছিল। তারপর চীনা বর্ষপঞ্জিকা অনুযায়ী নতুন বছরের আগমন করতে তাকে বাড়ি নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু সেখানে গিয়ে এই শিশু আরও অসুস্থ হয়ে যায়। তারপর তাকে আবার হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

গত ৪ ফেব্রুয়ারী তাকে ডাক্তারেরা মৃত ঘোষণা করে ডেথ সার্টিফিকেট তৈরি করেন। তারপর তাকে মর্গে রাখা হয়। মর্গে রাখার সময় তাকে দুইটি উলের কাপড় দিয়ে ভাল করে পেঁচিয়ে রাখা হয়। তাকে যে বক্সে রাখা হয় সেখানে তার মাথার নিকট তুলার বালিশও ছিল। এতে হয়ত সে ঠাণ্ডা থেকে রক্ষা পেয়েছে।–সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে।