মেইন ম্যেনু

মৃত্যু থেকে বাঁচিয়ে লাগাতার ২০ দিন ধরে ধর্ষণ

একটি মেয়েকে আত্মহত্যার পথ থেকে সরিয়ে এনেছিল একজন। কিন্তু সে যে পশুর চেয়েও অধম তা বোঝেননি ওই মেয়েটি। আর তাই তার ফাঁদে পা দিয়ে দিনের পর দিন ধর্ষিত হতে হল তাকে। এমনই ভয়াবহ ঘটনাটি ঘটেছে ভারতোর হরিয়ানায়। এ খবর দিয়েছে ভারতের পত্রিকা ওয়ান ইন্ডিয়া।

খবরে জানা যায়, ২৫ বছরের এক বিবাহিত নারী মায়ের সঙ্গে ঝগরা করে নিজেকে শেষ করতে চেয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। তার বক্তব্য অনুযায়ী তিনি গত ১৭ মার্চ বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। এরপর পথেই আলাপ হয় একটি লোকের সঙ্গে। সে তাকে সেই পথে যেতে না দিয়ে বাঁচায়। নিজেকে সন্দীপ নামে পরিচয় দিয়ে লোকটি এরপর তাকে নিজের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে সেই রাতেই ধর্ষণ করে।

অভিযোগ, সেদিনের ঘটনার তিনদিন পর অভিযুক্ত সন্দীপ নামের লোকটি যুবতীকে গাজিয়াবাদে নিয়ে যায়। সেখানে একটি সাদা কাগজে সই করতে বলে ও তাকে জোর করে বিয়ে করতে চায়। যখন সে জানতে পারে সেই নারী বিবাহিত তখন তাকে জোর করে আটকে রেখে লাগাতার ২০ দিন ধর্ষণ করা হয়। পরে সেই নারী এই অভিযোগে মামলা করেছেন।