মেইন ম্যেনু

মেঘনার ভাঙন থেকে বাচঁতে ভোলায় অবস্থান কর্মসূচি, স্মারকলিপি প্রদান

ভোলা সদর উপজেলা (রাজাপুর, ইলিশাসহ ৫ ইউনিয়ন) মেঘনার কড়াল ভাঙন থেকে রক্ষার দাবিতে মঙ্গলবার টানা আনন্দোলনের সপ্তম দিনে জেলা প্রশাসক কার্যালয় ঘেরাও ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন রাজাপুর, ইলিশার ৫ ইউনিয়নের কয়েক শত নারী পুরুষ ও বিভিন্ন পেশার মানুষ।

উত্তর ভোলা বাঁচাও সংগ্রাম কমিটির ব্যানারে এ আন্দোলন চলছে। একই দাবীতে ঢাকায় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করার পর ভোলা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সমনে বৃষ্টি উপক্ষো করে কয়েক শত নারী পুরুষ অবস্থান নেয়।

এসময় সিসি ব্লক ও জিও টিউব ডাম্পিং করার দাবি জানিয়ে লিফলেট বিতরণ করা হয়।

ভোলা বাঁচাও সংগ্রাম কমিটির পক্ষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেয়া হয়। এক মাসে ৩ কিলোমিটার এলাকা মেঘনায় বিলীন হওয়ার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডকে দায়ি করেছেন সংগ্রাম কমিটির নেতারা।

এসময় জেলা প্রশাসক সেলিম রেজা, উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ ইউনুছ আন্দোলনে একত্মতা প্রকাশ করে জানান, ভোলাকে রক্ষা করার জন্য সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবেন। বানিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ও পানি সম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ নদী ভাঙন এলাকা পরির্দশন করে ভাঙন রোধে স্থায়ী পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দেন পানি উন্নয়ন বোডের কর্মকর্তাদের। কাজ শুরু করার কয়েক কয়েক দিন না যেতে হঠাৎ কাজ করে করে দেয়ায় ভাঙন ফের ভয়াবহ আকার ধারন করে। বিলীন হয়ে যাচ্ছে কয়েক শত কোটি টাকার সম্পদ। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে স্থানীয়রা।

এদিকে অবস্থান কর্মসূচি পালনকালে বক্তব্য রাখেন সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক আওয়ামী লীগ নেতা সায়েদ আলী, ভোলা স্বার্থ রক্ষা উন্নয়ন কমিটির সম্পাদক অমিতাভ অপু, সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি আবিদুল আলম, রফিকুল ইসলাম মাস্টার, মোস্তফা মেম্বার প্রমুখ।

এদিকে ভোলা বারের আইনজীবীরা আন্দোলনের প্রতি একত্মতা প্রকাশ করেছেন।