মেইন ম্যেনু

মেডিকেলে অধ্যয়নরত পাকিস্তানি শিক্ষার্থীদের তথ্য সংগ্রহের নির্দেশ

দেশের সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে অধ্যয়নরত পাকিস্তানি শিক্ষার্থীদের হালনাগাদ তথ্য চেয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের কাছে বাংলাদেশের মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে গত পাঁচ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিকৃত পাকিস্তানি শিক্ষার্থীদের হালনাগাদ তথ্য প্রেরণ করতে নির্দেশক্রমে অনুরোধ জানানো হয়।

গতকাল রোববার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব খান মো. নূরুল আমিন স্বাক্ষরিত এক চিঠির (পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, আন্তর্জাতিক অনুবিভাগ, ঢাকা এর স্মারক-৪২৬, ২৯ আগস্ট ২০১৬) সূত্রে এ তথ্যউপাত্ত চাওয়া হয়।

এ ব্যাপারে সোমবার বিকেলে জানতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা ও জনশক্তি উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. আবদুর রশীদ জানান, তিনি এখনও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চিঠিটি হাতে পাননি।

pak20160919183829

জানা গেছে, সার্কভুক্ত দেশসমূহের কোটায় সরকারি মেডিকেল কলেজে প্রতি বছর ১৮ জন করে শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ রয়েছে। বর্তমানে বেসরকারি মেডিকেল কলেজে আসন সংখ্যার শতকরা ৫০ ভাগ বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তি করার অনুমতি রয়েছে। সম্প্রতি গুলশান হলি আর্টিসান হামলায় দুই পুলিশ কর্মকর্তা ও জিম্মিদার ২০ জনসহ মোট ২২ জন নিহত হওয়ার পর ওই ঘটনার সঙ্গে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের একাধিক কর্মকর্তা ও চিকিৎসক নেতা জানান, বাংলাদেশের মেডিকেল কলেজে বিশেষ করে বেসরকারি মেডিকেল কলেজে অধ্যয়নরত পাকিস্তানি শিক্ষার্থীদের মধ্যে কারও সঙ্গে জঙ্গি কানেকশন রয়েছে কিনা তা জানতেই মূলত গত পাঁচ বছরে ভর্তিকৃত পাকিস্তানি শিক্ষার্থীদের সম্পর্কে হালনাগাদ তথ্যউপাত্ত চেয়ে পাঠানো হয়েছে।